ঢাকা, মঙ্গলবার   ০৯ মার্চ ২০২১,   ফাল্গুন ২৫ ১৪২৭

লাইফস্টাইল ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৩:৫৮, ১৫ জুন ২০২০

কীভাবে ডিপ্রেশন থেকে মুক্তি পাবেন

আমরা অনেকেই ভাবতে পারি মানসিক স্বাস্থ্য আমাদের জন্য তেমন গুরত্বপূর্ণ নয়। কিন্তু শারিরীক স্বাস্থ্যের সাথে মানসিক ব্যাপারকেও সমানভাবে মূল্যায়ন করতে হবে। নিজের পাশাপাশি অন্যদেরও এই বিষয়ে সতর্ক ও উৎসাহী করতে হবে।

আমাদের মধ্যে এমন অনেকে আছেন যারা নিজের ভেতরে শেষ হয়ে গেলেও বাইরে তা প্রকাশ করেন না। ভবিষ্যত নিয়ে উদ্বিগ্নতা, প্রিয়জনের অবহেলা বা ছেড়ে যাওয়া, ব্যক্তিগত নানা সংকট, একাকিত্ব এই সব কিছু থেকে আসতে পারে ডিপ্রেশন। ফলে অনেকে এ থেকে বাঁচার জন্য বেছে নেই আত্মহনন এর পথ।

সাধারণ মন খারাপের মতো নয় ডিপ্রেশন। এটি দিনের পর দিন খারাপ অভিজ্ঞতার সমন্বিত বহিঃপ্রকাশ। তবে আপনি কি জানেন আশেপাশের মানুষের ভালোবাসা আর মনোযোগই পারে এ থেকে বের করে আনতে।

ডিপ্রেশনের লক্ষণঃ

১। ডিপ্রেশনের শিকার ব্যক্তি বেঁচে থাকাকে নিরর্থক মনে করে, নিজেকে ঘৃণা করতে শুরু করে এবং জীবনে ঘটে যাওয়া সমস্ত ভুলের জন্য দোষী ভাবতে শুরু করে।

২। ব্যক্তি হঠাৎ করে যেকোনো কিছু করার আগ্রহ হারিয়ে ফেলে। এমনকী শখের কাজ বা খেলাধুলা যা সে আগে করতে পছন্দ করতো, কোনোকিছুই আর ভালোলাগে না।

৩। ডিপ্রেশন হলে শক্তির অভাব বা ক্লান্তি অনুভূত হয়, যার ফলে হতে পারে অতিরিক্ত ঘুম।

৪। ডিপ্রেশন আক্রান্ত ব্যক্তির ক্ষুধার ধরন বদলে যায়। কেউ কেউ প্রচুর খাবার খান, আবার কেউ কেউ ক্ষুধার্ত বোধই করেন না।

৫। তাদের জন্য আবেগ নিয়ন্ত্রণ করাও কঠিন হয়ে পড়ে। কখনো কখনো তারা খুশি থাকেন এবং একটু পরেই আবার রেগে যেতে পারেন।

এক্ষেত্রে আপনার করণীয়ঃ

১। যদি এই লক্ষণগুলো আপনার কাছের বা আশেপাশের কারো মধ্যে দেখে থাকেন তাহলে তাদের সাথে কথা বলুন।

২।  তাদের একা রাখবেন না। তাদের বিভিন্নভাবে সাহায্য করা চেষ্টা করুন।

৩। বিচার না করে, তর্ক না করে বা ধমক না দিয়ে মন দিয়ে তাদের কথা শুনুন।

৪। পাশাপাশি তাদের পেশাদার কোনো মনোরোগ বিশেষজ্ঞের সহায়তা নিতে সাহায্য করুন।

যদি আপনি নিজে ডিপ্রেশনে পড়েনঃ

এমন অনেক সময় রয়েছে যখন আমরা সবাই আমাদের ভবিষ্যত নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়ি এবং সহজে সমাধানও মেলে না। তবে মনে রাখবেন এর মানেই সবকিছু শেষ নয়, পৃথিবীর সব সমস্যারই কোনো না কোনো সমাধান আছে। সময় সবচেয়ে বড় ওষুধ। এই সময়ই আপনাকে অনেককিছু ভুলিয়ে দেবে।

নিজেকে টিকিয়ে রাখার আপ্রাণ চেষ্টা করে যান। কোনো অবস্থায়ই আত্মঘাতী হওয়ার সিদ্ধান্ত নেবেন না। যদি মাথায় এরকম চিন্তা আসে তবে আপনার পরিবার বা বন্ধুদের সাথে এই বিষয়ে কথা বলুন। আপনি এর জন্য পেশাদার কারো সহায়তা নিতে পারেন বা কাউন্সেলিং বা থেরাপি সেশনে অংশ নিতে পারেন।

আইনিউজ/এসডিপি

Green Tea
সর্বশেষ
জনপ্রিয়