ঢাকা, শনিবার   ১৬ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ১ ১৪২৮

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৯:৩০, ৪ অক্টোবর ২০২১
আপডেট: ২৩:৩৫, ৪ অক্টোবর ২০২১

মৌলভীবাজারের সানজানা শিরিনকে সেই বাইকটি দিচ্ছেন ইঞ্জিনিয়ার নাছির

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের মেয়ে স্বাস্থ্যকর্মী সানজানা শিরিন।

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের মেয়ে স্বাস্থ্যকর্মী সানজানা শিরিন।

ঘটনার শুরু এক পাঠাও রাইডার শওকতকে দিয়ে, বারবার ট্রাফিক পুলিশের হাতে পড়ে তিনি হেনস্তার শিকার হচ্ছিলেন। মোড়ে-মোড়ে তাকে আটকাচ্ছিলো ট্রাফিক, তাতে মনের দুঃখে নিজের বাইকটিই (মোটরসাইকেল) আগুনে জ্বালিয়ে দেন তিনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিষয়টি বেশ ভাইরাল হয়েছিলো। 

আলহাজ্ব শামসুল হক ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার নাছির উদ্দিনের চোখে আসে ঘটনাটি, তিনি সিদ্ধান্ত নেন সেই পাঠাও চালককে উপহার দেবেন নতুন একটি বাইক। বিষয়টি ঘোষণাও দেন তিনি। কিন্তু ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও ডাকসুর সাবেক জিএস গোলাম রাব্বানী বাইক কিনে দেন শওকতকে, মানবিক কাজে জড়িত অন্য যে কাউকে ঘোষণাকৃত মোটর সাইকেলটি তুলে দেয়ার কথা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানিয়ে দেন ইঞ্জিনিয়ার নাসির উদ্দিন।

সেই মোটরসাইকেলটি কাকে দেওয়া হবে এর ভিত্তিতে অনেকেই আবেদন করেন। সানজানা শিরিনের পক্ষেও অনেক আবেদন জমা পড়ে। প্রায় ২০০ আবেদনের মধ্যে যাচাই-বাছাই করে তাকে মোটরসাইকেলটি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন ইঞ্জিনিয়ার নাসির।

পাঠাও রাইডার শওকতকে দেওয়ার বদলে সেই বাইকটি এখন পাচ্ছেন মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের মেয়ে স্বাস্থ্যকর্মী সানজানা শিরিন। বিষয়টি নিশ্চিত করে ইঞ্জিনিয়ার নাছির উদ্দিন ফেসবুকে একটি পোস্টও দিয়েছেন। আইনিউজ পাঠকদের সুবিধার্তে পোস্টটি হুবহু তুলে দেওয়া হলো-

ইশ আমরা যদি অনেক গুলো মোটর সাইকেল দিতে পারতাম!

অতি অল্প সময়ের মধ্যে এত্তোগুলো আবেদন পেয়ে আমরা প্রচন্ড চিন্তায় পড়ে গিয়েছি। মানবিক কাজে একেকজন একেক যোগ্যতা সম্পন্ন। কাকে বাদ দিয়ে কাকে দেয়া যায়! খুবই দুরূহ বিষয়!

নিজেদের পরিবারের দুঃখের কথা উল্লেখ করে এমন এমন আবেদন আমরা পেয়েছি, যাতে সহজেই বুঝেছি একটা মোটর সাইকেল পেলে উনারা নিজেদের পরিবারকে ভালোই সাপোর্ট দিতে পারবেন।

করোনাকালীন সময়ে, করোনাকালীন সময়ের আগে থেকে মাঠে ময়দানে কাজ করা এমন এমন ভাইয়ের আবেদন আমরা পেয়েছি যাদেরকে আমরা অন্তর থেকেই শ্রদ্ধা ও স্যালুট জানাচ্ছি। আমরা উনাদের নাম শ্রদ্ধাচিত্তে আমাদের ডায়েরীতে লিপিবিদ্ধ করে রাখছি। সময় সুযোগ হলে কোন এক সময় এ সময়ের মুক্তিযুদ্ধাদের আমরা অফিসিয়ালি শ্রদ্ধা জানাবো, ইনশাআল্লাহ।

আমরা পূর্বেই উল্লেখ করেছিলাম, দল-মত-ধর্ম-বর্ণ-লিংগ নির্বিশেষে সকলেই এখানে আবেদন করতে পারবেন। সে মতে বহু আবেদনই রিসিভ করেছি। সকলের নিজ নিজ আবদান গুলোর বিষয়ে আমরা শ্রদ্ধা ও সম্মান রেখে একজনের কিঞ্চিৎ অবদান স্বশ্রদ্ধ চিত্তে উল্লেখ করছি।

সিজার অপারেশন করা যেখানে অনেকটা অভ্যাস হয়ে গিয়েছে সেখানে এক দুজন বা এক দুশো নই, ছয়শত উনত্রিশ জন মা'কে একজনেই নরমাল ডেলিভারি করিয়েছেন! এ কি ভাবা যায়!! বিস্ময়কর বিষয় হলো প্রায় ৬ হাজার মানুষের বিপদের মুহুর্তে তিনি রক্ত ম্যানেজ করে দিয়েছেন। নিজের রক্ত ২১ বার বিলিয়ে দিয়েছেন পরের তরে।

দুই শতাধিক মানুষের জন্য খাবারের আয়োজন করেছেন ২১ বার, ৪টা পরিবারের জন্য ঘর নির্মাণ, মহিলাদের আত্মনির্ভরশীলতা প্রোগ্রামের আওতায় সেলাই মেশিন বিতরণ, নলকূপ স্থাপন কার্যক্রম আমাদেরকে দারুনভাবে নাড়া দিয়েছে। সিলেটের একটা হাসপাতালে মেডিকেল এসিস্ট্যান্ট পদে স্বল্পবেতনের একজন চাকুরীজীবি হয়েও তিনি যে মহত্ত্ব প্রতিদিন স্থাপন করে যাচ্ছেন আমরা খুবই নিশ্চিত তিনি আগামীতে অনেকের কাছে অনুসরণীয় হয়ে থাকবেন।

তাঁর নিজ জেলায় একটা বৃদ্ধাশ্রম করার স্বপ্ন ইতোমধ্যে বাস্তবে রূপ নিতে শুরু করেছে। অসহায় বৃদ্ধ মা-বাবাদের রাখার জন্য বিশাল একটা জায়গা ক'দিন আগেই বায়না করে ফেলেছেন। এই মহতী ত্যাগী বোনটা আলহাজ্ব শামসুল হক ফাউন্ডেশনের একজন মহিলা সদস্য বটে। সংগত কারণেই আমরা শ্রদ্ধাচিত্তে সিলেটের সানজানা শিরিনের হাতে আমাদের ছোট্ট উপহারটা তুলে দেয়ার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

গতকাল রাতে তার পক্ষ থেকে আরেকজন ব্যক্তি আবেদন করেছিলেন। আজ সকালে সানজানার সাথে কথা হয়েছে। নিজ কাজের ব্যস্ততায় তাঁর চট্টগ্রাম আসতে কিছুটা সময় লাগতে পারে। তাই আমরা মোটর সাইকেলটা কুরিয়ারে করে আগামীকালই সিলেটে পাঠিয়ে দিচ্ছি।

ধন্যবাদ প্রিয় সানজানা শিরিন। মানব কল্যাণে তোমার স্বপ্নগুলো বাস্তবে রূপ নেয়ার বিষয়ে আলহাজ্ব শামসুল হক ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে আন্তরিক শুভকামনা ও সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে, ইনশাআল্লাহ।

বিষয়টি নিয়ে আইনিউজের কথা হয় সানজানা শিরিনের সাথে। তিনি আইনিউজকে জানান, প্রায়ই গর্ভবতী ও প্রসূতি মায়েদের সেবায় প্রত্যন্ত অঞ্চলে তাকে যেতে হয়, সেক্ষেত্রে যোগাযোগব্যবস্থা অনেকক্ষেত্রেই বড় বাঁধা হয়ে দাঁড়ায়। ইঞ্জিনিয়ার নাছির উদ্দিনের দেওয়া সেই বাইকটি পেলে তিনি উপকৃত হবেন, দ্রুততম সময়ে রোগীদের কাছে পৌঁছে যেতে পারবেন।

আইনিউজ/এসডি

বারবার ট্রাফিক পুলিশের মামলা, মনের কষ্টে নিজের মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেন যুবক 

মৌলভীবাজারে আছিয়া বেগমের হাতে ১০০০ নিরাপদ শিশুর জন্ম

Green Tea
সর্বশেষ
জনপ্রিয়