ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১,   ফাল্গুন ১৩ ১৪২৭

সিলেট প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২১:২৯, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২১

সৎ মা-বোন-ভাইকে কুপিয়ে হত্যা: পুলিশকে যা জানাল ঘাতক আবাদ

ঘাতক আবাদ হোসেন

ঘাতক আবাদ হোসেন

সিলেটে পারিবারিক কলহের জেরে সৎ মা, বোন, এবং ভাইকে কুপিয়ে হত্যা করেছে আবাদ হোসেন (২২) নামে এক যুবক। হত্যা করে পালিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয়দের সহযোগিতায় আবাদকে ছুরিসহ আটক করে পুলিশ।

জিজ্ঞাসাবাদে আবাদ হোসেন হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করেছে। এবং পুলিশকে জানিয়েছে কেন নির্মমভাবে সৎ মা, বোন ও ভাইকে হত্যা করেছে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আবাদ জানিয়েছেন, তার নিজের মা বিয়ানীবাজারে থাকে। তার বাবা সৎমাকে নিয়ে শাহপরান এলাকায় থাকে। কয়েক মাস আগে দোকান দেখাশোনার জন্য তার বাবা তাকে এখানে আনে। কিন্তু বিষয়টি তার সৎমা পছন্দ করেনি। কয়েক দিন ধরে সৎমায়ের আচরণে ক্ষিপ্ত হয়েই তিনি তাদের ওপর হামলা চালান।  

শুধু তাই নয়, হত্যার পর লাশগুলো পুড়িয়ে ফেলার জন্যও তোশকে আগুন লাগিয়ে দেয় আবাদ। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় ছুরিসহ ঘাতক আবাদকে গ্রেফতার করে পুলিশ। 

বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) রাত ১২টার দিকে মহানগরের শাহপরান (রহ.) থানার বিআইডিসি এলাকার মীর মহল্লায় এই নৃশংস ঘটনা ঘটে।

সৎমা রুবিয়া বেগম এবং তার মেয়ে মাহাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে আবাদ। ঘটনার পর তাহসানকে গুরুতর অবস্থায় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হলেও শেষ রক্ষা করা যায় নি।

শাহপরান থানার ওসি সৈয়দ আনিসুর রহমান জানান, ছুরি দিয়ে সৎমা, বোন ও ভাইকে কোপাতে থাকলে ঘটনাস্থলেই রুবিয়া ও মেয়ে নিহত হন। 

তিনি বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে স্থানীয়দের সহযোগিতায় আবাদকে ছুরিসহ আটক করা হয়। 

আইনিউজ/এসডিপি

আরও পড়ুন: সিলেটে সৎ মা-বোন-ভাইকে কুপিয়ে হত্যা

Green Tea
সর্বশেষ
জনপ্রিয়