ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২১,   অগ্রাহায়ণ ১৭ ১৪২৮

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২৩:৫৯, ১৬ অক্টোবর ২০২১
আপডেট: ০০:০০, ১৭ অক্টোবর ২০২১

যুদ্ধাপরাধের দায়ে অভিযুক্ত ব্যক্তি ‘নৌকার কান্ডারি’

হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জে একটি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকার কান্ডারি হয়েছে যুদ্ধাপরাধের দায়ে অভিযুক্ত ব্যক্তি। এমন ঘটনায় উপজেলাজুড়ে আলোচনার ঝড় উঠেছে।

মনোনয়ন পাওয়া ব্যক্তির নাম মিছবাহ উদ্দিন ভুইয়া। তিনি উপজেলার আওয়ামী লীগের সভাপতি। এর আগে উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে পাঁচবার অংশ নিয়েও জিততে পারেননি তিনি। ওই ইউনিয়নে এর আগের চেয়ারম্যান ছিলেন তারই বড় ভাই।

জানা গেছে, মিসবাহ উদ্দিন ভূইয়া ও তার ভাইয়ের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ জমা দিয়েছেন স্থানীয় চারজন বীর মুক্তিযোদ্ধা।

তবে মনোনয়ন পাওয়া মিসবাহ উদ্দিন ভূইয়ার দাবি, তার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ আনা হয়েছিল, সেটি চক্রান্তমূলক। তদন্তে সব মিথ্যা প্রমাণ হওয়ার পর বিষয়টি নিয়ে আর আগায়নি তদন্ত সংস্থা।

আগামী ১১ নভেম্বর উপজেলার কাকাইলছেও ইউনিয়নে ভোটের তারিখ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। কাকাইলছেও ইউনিয়নে নৌকা পেয়েছেন মিসবাহ উদ্দিন ভূঁইয়া।

এ বিষয়ে হবিগঞ্জ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলমগীর চৌধুরী বলেন, ‘মনোনয়ন দেয় কেন্দ্র, আমরা শুধু তালিকা পাঠাই। সুতরাং মনোনয়ন দেয়ার বিষয়ে আমাদের কিছুই করার নেই।

কাকাইলছেও ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান নূরুল হক ভূঁইয়া। সেখানে মনোনয়ন পাওয়া মিসবাহ উদ্দিন ভূঁইয়া তারই ছোট ভাই।

মিসবাহ ১৯৮৫ সালে প্রথম উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। ওই সময় তিনি প্রয়াত হাফাই মিয়ার কাছে হেরে যান। ১৯৯০ সালেও হাফাইকে হারাতে পারেননি তিনি।

২০০৯ সালে হাফাই মিয়ার ভাতিজা প্রয়াত মোশারফ হোসেন মোহনের কাছেও হেরে যান তিনি। ২০১৪ সালে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েও জামানত হারান। ২০১৮ সালে উপনির্বাচনেও আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে জিততে পারেননি।

তবে এবার তিনি জয়ের ব্যাপারে নিশ্চিত। বলেন, ‘এর আগে আমি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে পরাজিত হয়েছি, সেটা ঠিক। তবে আমি কখনও কাকাইলছেও ইউনিয়নে পরাজিত হইনি। সুতরাং এবার আমার জয় নিশ্চিত।’

গত ২৩ আগস্ট আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থার কাছে মিসবাহ উদ্দিন ভূঁইয়া ও তার বড় ভাই নূরুল হক ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ জমা দেন উপজেলার চারজন বীর মুক্তিযোদ্ধা।

দুই ভাইয়ের বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধের সময় লুটপাট, বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগ, ১৯৭০ সালের নির্বাচনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে আজমিরীগঞ্জে নৌকা থেকে নামতে না দেয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে।

আইনিউজ/এসডিপি 

Green Tea
সর্বশেষ
জনপ্রিয়