ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৩ মে ২০২১,   বৈশাখ ৩০ ১৪২৮

স্বাস্থ্য ডেস্ক

প্রকাশিত: ০০:০৫, ২ মে ২০২১
আপডেট: ০০:১৯, ২ মে ২০২১

তীব্র গরমে ঠোঁট ফাটার কারণ কি?

ঠোঁট ফাটা

ঠোঁট ফাটা

শীতকালে ঠোঁট ফাটার বিষয়টি স্বাভাবিক। তাই বলে গ্রীষ্মের তীব্র গরমেও ঠোঁট ফেটে গেলে একটু অবাক তো হওয়ারই কথা। আর সম্প্রতি এমন সমস্যাই দেখা দিচ্ছে।

মেয়েদের পাশাপাশি ছেলেরাও ঠোঁট ফাটার অভিজ্ঞতা জানাচ্ছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। সবার এক প্রশ্ন, গরমে কেনো ফাটছে ঠোঁট?

এমন প্রশ্নের জবাবে ঢাকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসক প্রফেসর মোস্তফা জামান আবহাওয়া বা জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে আগের মতো শীতকাল এখন আর হয় না এবং একই সাথে ঋতুগুলোর বৈশিষ্ট্যেও পরিবর্তন আসার প্রভাব পড়ছে মানবশরীরেও।

মোস্তফা জামান বলেছেন, এখন রোজার সময় আবার গরমও অনেক পড়ছে। যে কারণে অনেকেই পানিশুন্যতায় ভুগছেন। গরমের কারণে কারও ঠোঁট ফাটছে, আবার কারও কোষ্ঠকাঠিন্য হচ্ছে। কারণ চামড়া শুষ্ক হয়ে যাচ্ছে দ্রুত।

তিনি বলেন, শুষ্কতার কারণে স্কীনের জলীয় অংশ দ্রুত কমে যাচ্ছে। ঠোঁট বেশি আক্রান্ত হচ্ছে, কারণ ঠোটের বাইরের দিকটার চামড়া থাকে খুবই পাতলা ধরণের

মি. জামানের মতে যারা রোজা পালন করেন, তাদের এই সমস্যা বেশি হতে পারে। কারণ সেহেরি থেকে ইফতার পর্যন্ত প্রায় ১৪ ঘণ্টা পানাহার থেকে বিরত থাকতে হয়।

সাধারণত ঠোঁট ফাটে কেনো?

শরীরের অন্য জায়গার তুলনায় আমাদের ঠোঁটের চামড়া পাতলা। ঠোঁটের অবস্থান নাকের ঠিক নিচে থাকার জন্য নিশ্বাসের সাথে বেরিয়ে আসা গরম বাতাস ঠোঁট দুটোকে আরও শুকিয়ে দেয়। যার কারনে শরীরের অন্য জায়গার তুলনায় ঠোঁট বেশি ফাটে।

তাই শীতকালে বাতাসে আর্দ্রতার পরিমাণ বেশি হলে শরীর থেকে জলীয় অংশ কমে যায় এবং তখন চামড়ার এই স্তরটি দ্রুত ক্ষতিগ্রস্ত অর্থাৎ শুকিয়ে ফেটে যায়।

আবার ঠোঁট সামান্য শুষ্ক হলে অনেকে জিহ্বা দিয়ে ভেজানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু পরে স্যালাইভা শুকিয়ে গেলে ঠোট আরও শুষ্ক হয়ে ওঠে ও ফেটে যেতে পারে ।

এ বিষয়ে মোস্তফা জামান বলেন, অনেক সময় উচ্চ রক্তচাপ, হার্ট, কিডনি বা ক্যান্সারের চিকিৎসায় ব্যবহৃত কিছু ঔষধও শরীর থেকে পানি বের করে নেয় এবং সে কারণেও অনেকের ত্বক বিশেষ করে ঠোঁটে প্রভাব পড়ে।

ঠোঁট ফাটা রোধে করণীয়

১. প্রচুর পানি পান করা

২. তীব্র সূর্যালোক ও ধুলোবালি এড়িয়ে চলা।

৩. সুষম ও পুষ্টিকর খাবার খাওয়া।

৪. ঠোঁটের যত্ন নেয়া

৫. ভ্যাসলিন ব্যবহার করা

সূত্র: বিবিসি বাংলা

আইনিউজ/এসডিপি

Green Tea
সর্বশেষ
জনপ্রিয়