ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২১,   অগ্রাহায়ণ ১৮ ১৪২৮

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২১:১৬, ১২ নভেম্বর ২০২১

লাউ চাষে দ্বিগুন লাভবান রাজনগরের লেচু মিয়া

লেচু মিয়া লাউ চাষে দ্বিগুণ লাভবান হয়েছেন। আরো লাভের আশা রয়েছে। লাউ চাষের পাশপাশি  তিনি বরবটি, শসা ও বেগুন বিক্রি করে সাচ্ছন্দে আছেন পরিবার পরিজন নিয়ে। লেচু মিয়ার  স্বপ্ন সবজি চাষ করে একদিন লাখ টাকা উপার্জন করবেন।

লাউয়ের লতায় ছেয়ে গেছে পুরো ক্ষেত। লতার গিরায় সবুজ পাতার ফাঁকে ফাঁকে  মাঠে পড়ে আছে লাউ। ফুল আর নতুন কুঁড়ি গজাচ্ছে গাছের ডগায়। মৌলভীবাজার  রাজনগরের টেংরা ইউনিয়নের ডেফলউড়া গ্রামের লেচু মিয়ার সবজি ক্ষেতে এমন চিত্রই চোখে পড়ে।

লাউ চাষে ভাগ্য বদলে গেছে লেচু মিয়ার। করোনাকালীন সময়ে অভাবে পড়ে তিনি ৩ মাসের পরিকল্পনা নিয়ে কৃষি বিভাগের সহযোগিতায় ১ বিঘা উচুঁ ভূমিতে শুরু করেন লাউ চাষ। মাত্র ৭ হাজার টাকা খরচ করে দ্বিগুণ লাভবান হয়েছেন। আরো লাভের আশা রয়েছে। লাউ চাষের পাশপাশি  তিনি বরবটি, শসা ও বেগুন বিক্রি করে সাচ্ছন্দে আছেন পরিবার পরিজন নিয়ে। লেচু মিয়ার  স্বপ্ন সবজি চাষ করে একদিন লাখ টাকা উপার্জন করবেন।

কৃষি বিভাগ সুত্রে জানা গেছে করোনাকালিন সময়ে পরিবেশ বান্ধব কৌশলের মাধ্যমে নিরাপদ ফসল উৎপাদন প্রকপ্লের আওতায় প্রর্দশনী দিয়ে লেচু মিয়াকে লাউ চাষে উৎসাহিত করা হয়। এখন তিনি আত্মনির্ভরশীল। নিজ উদ্যাগেই চাষ করে যাচ্ছেন। তিনি চাষাবাদের অভিনব কৌশল রপ্ত করে বিভিন্ন জাতের শাক সবজি চাষ শুরু করেছেন।

করোনাকালীন ৩ মাসে ৫০০টি লাউ উৎপাদন হয়েছে লেচু মিয়ার। বিক্রি করেন ১৬ হাজার টাকায়। এখনও লাউ উৎপাদন অব্যাহত রয়েছে। চাষবাদে নতুন কলা কৌশল আয়ত্বে এনে শাকসবজি  উৎপাদন বৃদ্ধি হওয়ায় লেচু মিয়া কম খরচে অল্প পরিশ্রমে বেশি লাভের আশায় আছেন। লাউ ছাড়াও এ মৌসুমে ২০ হাজার টাকার বেগুণ, বরবটি, শশাসহ অন্যান্য শাকসবজি উৎপাদনের সম্ভাবনা রয়েছে। অনুকুল আবহাওয়া আর ঠিকমত বাজারজাত করতে পারলে ৪ মাসে ৩০ হাজার টাকা লাভ করতে পারবেন। তাকে অনুস্মরণ করে এলাকায়  বিছিন্নভাবে অনেকেই শাকসবজি চাষে আগ্রহী হচ্ছেন।

লেচু মিয়া বলেন, বিগত কয়েক বছর আগে বিভিন্ন জাতের শাকসবজিতে রাসায়নিক কীটনাশক ও সার ব্যবহারের হিরিক পরে। যা মানব দেহের জন্য ক্ষতিকারক। মানুষ নিরাপদ সবজি খাওয়ার কথা অনেকটাই ভুলে গিয়ে ছিল। আমি গরীব চাষী নিজের জমি নেই। পরের জমি চাষ করে কৃষি ক্ষেতের উপর রয়েছে এক অজানা আর্কষন। করোনা কালিন সময়ে সব কিছুতে যখন স্তবিরতা দেখা দেয় তখন অভাবের ধাক্কায় পরিবার সামলাতে দিশেহারা হয়ে যাই। এ সময় আমি স্থানীয় কৃষি বিভাগের সহযোগিতা নিয়ে প্রাকৃতিক জৈব পদ্ধতিতে লাউ চাষ শুরু করি।

লেচু মিয়া আরও বলেন, বীজ, সার ও প্রকৃতি বান্ধব হলুদ ট্যাপ, হরমুন ফাঁদ নিয়ে কৃষি বিভাগ আমার পাশে দাঁড়ায়।  নতুন কৌশল নিয়ে ক্ষেত শুরু করি এখন লাভের পথে আছি। আমি আশাবাদি সবজি চাষ করে এক দিন লাখ টাকা উর্পাজন হবে।

রাজনগর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শেখ ইফফাত আরা ইসলাম বলেন, লাউ চাষ করে লেচু মিয়া অল্প দিনে সফল হয়েছেন। করোনাকালীন সময়ে পরিবেশ বান্ধব কৌশলের মাধ্যমে নিরাপদ ফসল উৎপাদন প্রকপ্লের আওতায় প্রর্দশনী দিয়ে লেচু মিয়াকে লাউ চাষে উৎসাহিত করা হয়। এখন সে আত্মনির্ভরশীল। কৃষি বিভাগ সবসময় তাকে পরামর্শ দিয়ে আসছে।

মৌলভীবাজার কৃষি অধিদপ্তরের উপ-সহকারী পরিচালক কাজী লুৎফুল বারি বলেন, কৃষি বিভাগের সহযোগিতায় পরিবেশ বান্ধব কৌশলের মাধ্যমে নিরাপদ ফসল উৎপাদন প্রকপ্লের আওতায় প্রর্দশনীতে চাষীদের লাউ চাষে উদ্বোদ্ধ করা হয়। এতে আশানুরূপ ফলন হয়েছে। চাষীদের আমরা পরামর্শ দিয়ে, সহযোগিতা দিচ্ছি।

আইনিউজ/এসডি

আইনিউজ ভিডিও

 

দুবাইয়ে লটারি জিতে একরাতে কোটিপতি বাংলাদেশী যুবক | দুবাই প্রবাসী

মানুষ হত্যা করেছে মা হাতিকে, দুধের জন্য কাঁদছে বাচ্চা হাতিটি

মৌলভীবাজারের সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী ভারত সরকারের পদ্মভূষণ পদকে ভূষিত

প্রকৃতির সন্তান খাসি - খাসিয়া জনগোষ্ঠী

৪০ লক্ষ টাকায় বিক্রি হলো একটি মাছ, রাতরাতি ধনী জেলে

Green Tea
সর্বশেষ
জনপ্রিয়