ঢাকা, শুক্রবার   ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১,   আশ্বিন ২ ১৪২৮

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২০:৫১, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০

বাড়ির টবে ক্যাপসিকাম চাষ পদ্ধতি

সারা বিশ্বে ক্যাপসিকাম একটি জনপ্রিয় সবজি। আমাদের বাংলাদেশে তেমন পরিচিত না হলেও সম্প্রতি এর জনপ্রিয়তা ও পরিচিতি বাড়ছে। দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে এর চাষ বৃদ্ধি পাচ্ছে।

তবে বাড়ির ছাদে বা টবে যারা চাষ করতে পছন্দ করেন, তারা কিন্তু অনায়াসে ধনে, মরিচ, লেবু, টমেটোর পাশাপাশি ক্যাপসিকামেরও চাষ করতে পারেন। 

সাধারণত, বেলে দোআঁশ বা দোআঁশ মাটি বা মাটির বিকল্প নারিকেলের খোসার ডাস্ট বা কোকোপিট ক্যাপসিকাম চাষের জন্য ভালো। তবে এই গাছের সহ্যশক্তি কম। গ্রীষ্ম, বর্ষা, শীত সব সময়ই এর চাষ সম্ভব। তবে আলো-আঁধারি রয়েছে এমন স্থানে ক্যাপসিকামের টবটি রাখুন।

চারা রোপণ ও সার প্রয়োগ

১) ২২ থেকে ৩০ দিন বয়সের চারা প্রয়োজন।
২) একটি টবে একটি গাছ রোপণ করা উচিত।
৩) মাটি বেছে নিয়ে তার সঙ্গে ১/৩ অংশ গোবর, ইউরিয়া, টিএসপি, এমওপি, জিপসাম এবং জিংক অক্সাইড ভালো করে মেশানোর পর টবে প্রয়োগ করতে হবে।
৪) চারা রোপণের পর ইউরিয়া ও এমওপি দু’ভাগে ২০ ও ৩০ দিন পর প্রয়োগ করতে হবে।
৫) সূর্যের তাপ কমে এলে, বিকেলের দিকে চারা রোপণ করা ভালো।
৬) এক সপ্তাহ পর পর গাছে কেঁচো জৈব সার দশ লিটার জলে এক বা দুই রাত ভিজিয়ে পরের দিন এক কাপ করে সার মেশানো জল দিতে পারেন।

পরিচর্যা

১) আগাছা দেখলেই উঠিয়ে ফেলে দিন৷
২) প্রয়োজন মতো জল দিন, বেশি জল দিলে এই নরম গাছ পচে যেতে পারে।
৩) পোকামাকড় বা পিঁপড়ে গাছের ক্ষতি যেন না করতে পারে তাও নজরে রাখতে হবে।
৪) ভাইরাসজনিত রোগে পাতায় হলদে দাগ পড়ে এবং পাতা কুঁকড়ে আসে। এমন হলে গাছটি উঠিয়ে বা পুড়িয়ে ফেলা ছাড়া উপায় নেই।

আইনিউজ/এসডিপি

Green Tea
সর্বশেষ
জনপ্রিয়