ঢাকা, শুক্রবার   ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১,   আশ্বিন ২ ১৪২৮

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৪:৫২, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১
আপডেট: ১৮:২৩, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১

চীনে প্রাথমিক স্কুল থেকে করোনার নতুন প্রাদুর্ভাব

চীনে আবারও বাড়ছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রকোপ। দেশটির দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় ফুজিয়ান প্রদেশের একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ভাইরাসের এই সংক্রমণ দ্রুতগতিতে ছড়িয়ে পড়েছে। মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রাথমিকভাবে পাওয়া রিপোর্ট অনুযায়ী- ফুজিয়ান প্রদেশের ওই প্রাথমিক স্কুলের এক শিক্ষার্থীর বাবার কাছ থেকে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে থাকতে পারে। গত সপ্তাহে তিনি করোনায় আক্রান্ত বলে শনাক্ত হন।

চার দিনে ১০০ জনের সংক্রমণ ধরা পড়ায় ফুজিয়ান কর্তৃপক্ষ এক সপ্তাহের মধ্যে সব শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার নির্দেশ দিয়েছে।

চীনের করোনার উৎসস্থল ধরা হয় উহানকে। এরপর সাম্প্রতিক নানজিং প্রাদুর্ভাবকে বড় মনে করা হতো। এর এক মাস পরই ফুজিয়ানের এ ঘটনা।

ফুজিয়ানের পুটিয়ান শহরে ৩০ লাখ মানুষের বসবাস। এ কারণে নতুন সংক্রমণকে গুরুতরভাবে বিবেচনায় নেওয়া হচ্ছে। এটি সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত স্থানগুলোর একটি ধরা হতে চলেছে।

বলা হচ্ছে, ওই শিক্ষার্থীর বাবার ৪ আগস্ট সিঙ্গাপুর থেকে ফেরেন। এর ৩৮ দিন পর করোনা পরীক্ষায় পজিটিভ ফলাফল আসে।

ওই ব্যক্তি ২১ দিন কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন, এই সময় নয়টি নিউক্লিক এসিড এবং সেরোলজিক পরীক্ষায় ফলাফল নেগেটিভ ছিল।

শিক্ষার্থীর বাবা প্রকৃতপক্ষে বিদেশে সংক্রমিত ছিলেন কিনা তা স্পষ্ট নয়, কারণ এত দীর্ঘ সময়ে ভাইরাস অস্ফুট থাকা খুবই অস্বাভাবিক।

এমন পরিস্থিতিতে ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে পদক্ষেপ নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। একে বলা হচ্ছে, উহানের পর করোনা নিয়ে সবচেয়ে ভয়াবহ প্রাদুর্ভাবের বিরুদ্ধে লড়াই।

ইতিমধ্যে বিদ্যালয়গুলো বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। পুটিয়ান ত্যাগ করতে হলে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে প্রাপ্ত কভিড নেগেটিভ রেজাল্ট দেখানোর নির্দেশনা এসেছে। এ ছাড়া জনসমাগম স্থানে বিধিনিষেধ দেওয়া হয়েছে।

কাছাকাছি কয়েকটি শহরে সংক্রমণ দেখা দেওয়ায় বিধিনিষেধ জারি হয়েছে। আর এ ভাইরাসের ধরন হলো ভারতীয় ডেল্টা।

গোল্ডেন উইক নামে পরিচিত মধ্য-শরতের জাতীয় ছুটির আগেই করোনার এমন অশনি সংকেত দেখা গেল। এ সময় সাধারণত ভ্রমণের মওসুম হিসেবে পরিচিত।

আইনিউজ/এসডিপি 

Green Tea
সর্বশেষ
জনপ্রিয়