ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৩ মে ২০২১,   বৈশাখ ৩০ ১৪২৮

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২০:০১, ১০ এপ্রিল ২০২১
আপডেট: ২০:০২, ১০ এপ্রিল ২০২১

লাভ হয়নি বইমেলায়, ক্ষোভ ঝাড়ছেন প্রকাশকরা

সাধারণত প্রতি বছরের ১ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে বইমেলা শুরু হয়ে চলে পুরো মাস। এবার করোনাভাইরাস মহামারির কারণে শুরু থেকেই অনিশ্চয়তায় পড়ে বইমেলা। করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে এ বছর একুশে বইমেলা ভার্চুয়াল বা অনলাইনে করার কথা উঠেছিল। পরে অনিশ্চয়তার রেশ কাটিয়ে গত ১৮ মার্চ উদ্বোধন করা হয় ৩৭তম অমর একুশে বইমেলার।

উদ্বোধন হওয়ার পরে থেকে মেলা ছিল ক্রেতাবিহীন। তবে ছুটির দিনগুলোতে কিছুটা ক্রেতাদের আনাগোনা ছিল।

নির্ধারিত সময়ের দু'দিন আগেই ১২ এপ্রিল শেষ হচ্ছে অমর একুশে গ্রন্থমেলা। শনিবার (১০ এপ্রিল) সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদকে উদ্ধৃত করে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা ফয়সাল হাসান গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান। আগের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আগামী ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত বইমেলা চলার কথা ছিল।

গত ৫ এপ্রিল সোমবার থেকে সারাদেশে শুরু হয় সরকার ঘোষিত এক সপ্তাহের লকডাউন। এরপর থেকেই হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়ে বই প্রকাশকরা।

তাদের দাবি এবারের বই মেলায় তাদের আশানুরূপ বই বিক্রি হয়নি। তারা আর্থিকভাবে অনেক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তখন থেকেই তারা শঙ্কা করছিল নির্ধারিত সময়ের আগেই বইমেলা বন্ধ হয়ে যাওয়ার। তাদের সেই আশঙ্কাই আজ সত্যি হলো।

১২ এপ্রিল শেষ হচ্ছে অমর একুশে গ্রন্থমেলা সরকারের এমন ঘোষণার পর প্রকাশকদের সঙ্গে কথা বলতে গেলে তারা সবাই এবারের বইমেলার ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

তাদের মধ্যে বাংলাদেশ জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতির যুগ্ম-সম্পাদক হুমায়ূন কবির বলেন, আমাদের প্রতিদিন স্টল চালু করতে যে খরচ হয় তাও বই বিক্রি করে উঠাতে পারছি না। যত দ্রুত বইমেলা বন্ধ হবে ততই আমরা লোকসান থেকে রক্ষা পাব। এবারের বইমেলায় লাভজনক কিছুই পাইনি।

অনুপম প্রকাশনীর ম্যানেজার শাহিন আহমেদ বলেন, স্টলের কর্মীদের বই মেলায় না রেখে বাংলাবাজারের দোকানে রাখলে লকডাউনে পাইকারি বিক্রি আরও ভালো হত। তাদের বাইরে মার্কেটিং করালেও ব্যবসার উন্নতি পেতাম।

উল্লেখ্য, শুরুতে শুক্র ও শনিবার বেলা ১১টা থেকে রাত ৯টা এবং অন্যান্য দিন বেলা ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত মেলা চলছিল। করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার প্রেক্ষাপটে এখন সময় কমিয়ে রাত ৮টা পর্যন্ত করা হয়। পরে ৫ এপ্রিল থেকে সাতদিনের বিধি-নিষেধ আরোপ করা হলেও বইমেলা বন্ধ করা হয়নি। এই পরিস্থিতিতেও প্রতিদিন দুপুর ১২টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত একুশে বইমেলা চলছে।

আইনিউজ/এসডি

Green Tea
সর্বশেষ
জনপ্রিয়