ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৩ মে ২০২১,   বৈশাখ ৩০ ১৪২৮

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১২:২৭, ২২ এপ্রিল ২০২১
আপডেট: ১৭:৫৫, ২২ এপ্রিল ২০২১

সেই রিকশাচালকের চোখের পানি আনন্দাশ্রুতে পরিণত করলেন এক তরুণ ব্যারিস্টার

লকডাউনে আটকা পড়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া শারীরিক প্রতিবন্ধী রিকশাচালকের জন্য দুঃখ হয়েছিলো অনেকেরই। এবার ভাইরাল হওয়া সেই রিকশাচালকের চোখের পানি আনন্দাশ্রুতে পরিণত করলেন এক তরুণ ব্যারিস্টার।

রিকশাচালককে এক লাখ টাকা দিচ্ছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার আহসান হাবিব ভুঁইয়া।ইতোমধ্যেই তিনি এর ৫০ হাজার টাকা তুলে দিয়েছেন রিকশাচালকের হাতে। ওই রিকশাচালকের নাম রফিক। গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইলে। বাড়িতে তার স্ত্রী ও সন্তান রয়েছে। তিনি শারীরিক প্রতিবন্ধী।

ব্যারিস্টার আহসান হাবিব ভুঁইয়া

বুধবার (২১ এপ্রিল) গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে উঠে আসে ব্যারিস্টার আহসান হাবিব ভুঁইয়ার বক্তব্য। তিনি বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে রিকশা চালকের কান্না দেখার পর থেকে তাকে খুঁজে বের করার চেষ্টা করি। অবশেষে আজ তাকে রাজধানীর অদূরে ফরিদাবাদের এক গ্যারেজে খুঁজে পাই।

আহসান হাবিব ভুঁইয়া বলেন, তাকে স্বাবলম্বী করার জন্য আমার পরিবর্তন ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে এক লাখ টাকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ৫০ হাজার টাকা আজকে তার হাতে তুলে দিয়েছি। বাকী ৫০ হাজার টাকা অচিরেই তাকে দেব। যেন তিনি গ্রামে গিয়ে ছোটখাটো ব্যবসা করতে পারেন। টাকা পেয়ে রিকশাচালক রফিক খুবই খুশি হয়েছেন।

ব্যারিস্টার আহসান হাবিব ভুঁইয়া তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিকশাচালক রফিকের হাসিমাখা একটি ছবি পোস্ট করেছেন। ইতোমধ্যেই পোস্টটিতে ১৪ হাজার রিয়েকশন, ১১০০ মন্তব্য ও ১৭০০ শেয়ার হয়েছে। তাতে উঠে আসছে সবার প্রসংশা।

উল্লেখ্য, গত কয়েকদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে ওই ভিডিওতে রিকশাচালক রফিককে কান্নারত অবস্থায় বলতে শোনা যায়, আমরা প্রতিবন্ধী কাজ করে খেতে চাই। সেটাও করতে পারি না। বিধিনিষেধের মধ্যে তিনি তার ব্যাটারি চালিত রিকশায় যাত্রী নিয়ে কাকরাইল যাচ্ছিলেন। পথে ট্রাফিক পুলিশ তার রিকশা আটকে দেয়। তাকে ১২শত টাকা দিতে বলা হয়। নইলে রিক্সা ডাম্পিংয়ে দেওয়া হবে। 

ভাইরাল হওয়া সেই ভিডিওটি দেখতে ক্লিক করুন

আইনিউজ/এসডি

Green Tea
সর্বশেষ
জনপ্রিয়