ঢাকা, শনিবার   ১৫ আগস্ট ২০২০,   শ্রাবণ ৩১ ১৪২৭

স্বাস্থ্য ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৫:৫৩, ৩০ জুলাই ২০২০

ঘাড় ব্যথায় বাড়িতে বসেই করুন ব্যায়াম

সারা দিনে নানা কাজে আমাদের ঘাড়ের নড়াচড়া হয় বেশ। দেহভঙ্গি ঠিক থাকলে অসুবিধা নেই, কিন্তু ভুল হলেই ঘাড়ে ব্যথা হতে পারে। তাই এ ব্যাপারে সর্তক থাকতে হবে।

দীর্ঘক্ষণ অস্বাভাবিকভাবে ঘাড় বাঁকা রেখে কোনো কাজ করলে ব্যথা হতে পারে। বয়সের কারণে শরীরের হাড় কিছুটা ক্ষয়ে যায়। এই ক্ষয়ের ফলেও ঘাড় ব্যথা হতে পারে। আবার উচ্চরক্তচাপ এবং যক্ষ্মাসহ কিছু জীবাণুর সংক্রমণ, চোখের কিছু অসুবিধা এবং দুঃশ্চিন্তার কারণেও হতে পারে এমনটা। 

ঘাড়ব্যথাসহ নানা রকম শারীরিক ব্যথায় রোগীরা চিকিৎসকদের পরামর্শ ছাড়াই নিজে নিজে উচ্চমাত্রার বিভিন্ন ব্যথানাশক ওষুধ সেবন করেন। এতে স্থায়ী সমাধান তো হচ্ছেই না বরং কিডনি, পাকস্থলি ও লিভারের অপূরণীয় ক্ষতি হতে পারে।

তাই ঘাড় ব্যথায় নিয়মিত কিছু ফিজিওথেরাপি ও ব্যায়াম বাড়িতে করলে অনেকটাই আরাম পাওয়া যাবে। যেমন-

১. অনেক সময় ঘাড়ের তীব্র ব্যথার সঙ্গে ধীরে ধীরে হাতের আঙ্গুল পর্যন্ত ব্যথা, ঝিঁ ঝিঁ করা, অবশ হয়ে যাওয়ার মতো অনুভূত হওয়া ইত্যাদি লক্ষণ দেখা দেয়। এমতাবস্থায় বিছানায় শুয়ে ঘাড়ের নিচে নরম বালিশ রেখে রিপিটেড রিট্রাকশন এক্সারসাইজ করতে হবে।

২. প্রচণ্ড ঘাড়ব্যথার সঙ্গে মাংসপেশির অস্বাভাবিক সংকোচন বিবেচনা করে স্ট্রেচিং এক্সারসাইজ করানো হয়ে থাকে। এই অস্বাভাবিক মাংসপেশির সংকোচন কমানোর জন্য রোগীকে থার্মাল থেরাপি হিসেবে হিট ও কোল্ড থেরাপি দেওয়া যেতে পারে।

৩. ব্যথার তীব্রতা কমে গেলে চেয়ারে বসে ‘চিন টাক’ এক্সারসাইজ করা যাবে।

৪. ঘাড় থেকে হাত পর্যন্ত ব্যথা চলে এলে ঘাড়কে ঠিক বিপরীত কাঁধের দিকে নিয়ে থেরাপিউটিক এক্সারসাইজ করতে হবে। যে পাশে ব্যথা থাকে ঠিক ওই পাশের ঘাড়ের মাংসপেশির স্ট্রেচিং করা হয় ও সঙ্গে সঙ্গে কোল্ড থেরাপি দেয়া হয়। কিছু কিছু ক্ষেত্রে নার্ভের কমপ্রেশন কমানোর জন্য নিউরোডায়নামিকসের চিকিৎসা ব্যবস্থা নেয়া যেতে পারে।

আইনিউজ/এসডিপি

Green Tea
সর্বশেষ
জনপ্রিয়