ঢাকা, শুক্রবার   ১০ জুলাই ২০২০,   আষাঢ় ২৫ ১৪২৭

প্রবাস ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৪:৩৭, ২৯ জুন ২০২০
আপডেট: ০৪:৪০, ২৯ জুন ২০২০

ফিনল্যান্ডে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ, বিপাকে বাংলাদেশিরা

এবার স্ক্যান্ডিনেভিইয়ান দেশ ফিনল্যান্ডে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ ও মৃতের সংখ্যা। এই পর্যন্ত দেশটিতে একজন বাংলাদেশি আক্রান্ত হয়েছে এবং তিনি হাসপাতালে নিবিড় পরিচর্যায় আছেন বলে জানা গেছে। দেশটিতে প্রায় ৮ হাজার বাংলাদেশির বসবাস রয়েছে।

করোনাভাইরাস প্রতিরোধ ও এর বিস্তার ঠেকাতে বেশ কিছু কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে ফিনল্যান্ড সরকার। বিমান ও গণপরিবহন চলাচলে আরোপ করা হয়েছে বিধিনিষেধ। অনেক দেশের সাথে অন অ্যারাইভাল ভিসা বন্ধ সহ ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। সীমান্তবর্তী দেশ রাশিয়া, নরওয়ে ও সুইডেনের সঙ্গে স্থলসীমান্ত বন্ধ রাখা হয়েছে। একই সময়ে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। অধিকাংশ অফিস-আদালত ও ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানই বন্ধ রয়েছে।

করোনা ভাইরাসে সংক্রামিত বেশিরভাগই রোগীই দক্ষিণ ফিনল্যান্ডের। তাই সমস্ত যান চলাচল বন্ধ করে রাজধানী হেলসিংকি সহ দক্ষিণ ফিনল্যান্ডেকে সারাদেশের সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়েছে। রেষ্টুরেন্টগুলি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তবে শুধুমাত্র পিক-আপ ও হোম-ডেলিভারীতে খাবার সংগ্রহের জন্য ম্যাকডোনাল্ডাস ও সাবওয়ে সহ ফার্ষ্টফুড রেষ্টুরেন্টগুলিকে খোলা রাখার অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

করোনার কারণে সবার মধ্যে বিরাজ করছে অনিশ্চয়তা ও আতঙ্ক। দেশটিতে স্থানীয়দের পাশাপাশি বিপাকে রয়েছেন বাংলাদেশের প্রবাসীরা। এদের অধিকাংশই থাকেন হেলসিংকি সহ দক্ষিণ ফিনল্যান্ডে। আতংকিত হয়ে অনেকেই বাড়িতে খাবারসহ দরকারি জিনিসপত্র মজুদ করছেন। যদিও নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দোকানপাট খোলা আছে।

করোনার প্রভাবে যারা সাময়িকভাবে চাকরিচ্যুত অথবা ব্যবসায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন তাদের জন্য সরকার ইতিমধ্যে আর্থিক সহায়তার ঘোষণা দিয়েছেন এবং আরো নতুন নতুন প্রণোদনা প্যাকেজের ঘোষনা আসবে বলেও জানানো হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী সান্না মারিন করোনার বিস্তার রোধে ফিনল্যান্ডের অধিবাসীদের সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার আহবান জানিয়েছেন।

এখন পর্যন্ত সরকারি হিসেবে দেশটিতে  মোট ৭ হাজার ১৯৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে ৩২৮ জন মৃত্যুবরণ করেছেন।

জেএ/আই নিউজ

Green Tea
সর্বশেষ
জনপ্রিয়