ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৩ মে ২০২১,   বৈশাখ ৩০ ১৪২৮

মাদারীপুর প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২৩:২৫, ৩ মে ২০২১
আপডেট: ২৩:৩৮, ৩ মে ২০২১

ইন্টারভিউ দিয়ে বাড়ি ফেরা হলো না জবি শিক্ষার্থী শাহাদাতের

শাহাদাত হোসেন মোল্লা

শাহাদাত হোসেন মোল্লা

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাস্টার্স পাস করে চাকরির চেষ্টা করছিলেন শাহাদাত হোসেন মোল্লা। চাকরির ইন্টারভিউ দিতেই গ্রামের বাড়ি থেকে ঢাকায় আসেন তিনি। কিন্তু সেই পরীক্ষা দিয়ে আর ফেরা হলো না তার। মাঝপথেই স্পিডবোট ডুবিতে প্রাণ দিতে হলো তাকে। 

সোমবার সকালে কাঁঠালবাড়ীর বাংলাবাজার পুরোনো ঘাটে পদ্মা নদীতে বাল্কহেডের সঙ্গে ধাক্কা খায় শাহাদাতসহ ৩১ যাত্রী বহনকারী স্পিডবোডটি। এতে সব যাত্রী পানিতে পড়ে যান। পরে ফায়ার সার্ভিসের অভিযানে ২৬ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। যার মধ্যে একজন শাহাদাত।

আরও পড়ুন:  আর কেউ রইল না নয় বছরের মীমের

জানা গেছে, শাহাদাত হোসেন মোল্লা (২৯) গ্রামের বাড়ি মাদারীপুরেরর শিবচর উপজেলার নিয়ামতকান্দী গ্রামে।তার বাবা আদম আলী মোল্লা ও মা রিজিয়া বেগম দম্পতির ছয় ছেলে ও চার মেয়ের মধ্যে সবার ছোট ছিলেন শাহাদাত। তিনি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ৭ম ব্যাচের শিক্ষার্থী। রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ থেকে অনার্স ও  এ বছর মাস্টার্স পাস করেন। একটি চাকরির মৌখিক পরীক্ষা দিতে তিনি ঢাকায় আসেন। পরীক্ষা শেষে বাড়ি ফেরার পথে শিমুলিয়া ঘাট থেকে স্পিডবোটে উঠেন। পরে বাল্কহেডের সঙ্গে ধাক্কা লেগে স্পিডবোট ডুবিতে প্রাণ হারান।

আরও পড়ুন:  মাদারীপুরে স্পিডবোট ডুবি: নিহতদের বেশিরভাগের মাথায় ছিল আঘাত

শিবচর উপজেলার দোতরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে ভাইয়ের লাশ নিতে এসেছেন শহিদুল মোল্লা। তিনি বলেন, আদরের ছোট ভাই শাহাদাত। লকডাউনের ভেতর ঢাকা যেতে না করেছিলাম। তবু গেছে। ভাই তোকে হারালাম ভাই। আব্বা-আম্মাকে কী বলে সান্ত্বনা দেব?

আইনিউজ/এসডিপি

Green Tea
সারাবাংলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
সর্বশেষ
জনপ্রিয়