ঢাকা, শনিবার   ০৪ ডিসেম্বর ২০২১,   অগ্রাহায়ণ ২০ ১৪২৮

আইনিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৬:০৫, ১০ আগস্ট ২০২১
আপডেট: ০০:৩১, ১১ আগস্ট ২০২১

ফটোফিচার

রনজিৎ জনির চোখে আদিবাসী সংস্কৃতি

মৌলভীবাজারের পানজুমে খাসিয়া। ছবি: রনজিৎ জনি।

মৌলভীবাজারের পানজুমে খাসিয়া। ছবি: রনজিৎ জনি।

বাংলাদেশে আদিবাসী জনগোষ্ঠীর পরতে পরতে লুকিয়ে আছে হাজার বছরের সমৃদ্ধ সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য, আছে রঙের ছটা। একটি স্বতন্ত্র জাতিসত্ত্বার যে সব বৈশিষ্ট্য রয়েছে, আদিবাসী জনগোষ্ঠীর তা রয়েছে। ভিন্ন জীবনধারা, বৈচিত্র্যময় সংস্কৃতি আর অনন্য শিল্পশৈলীর অফুরান মিশ্রণে ঘেরা আদিবাসী সম্প্রদায়। 

তবে আদিবাসী সারা দেশেই ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকলেও মৌলভীবাজার জেলায় যেনো তাদের একধরণের বৈচিত্র্য ও রঙিন জীবন দেখা যায়। আর মৌলভীবাজার জেলায় বিভিন্ন আদিবাসী সম্প্রদায়কে নিয়েই এই ফটোফিচার।

আইনিউজের নিজস্ব ফটোসাংবাদিক রনজিৎ জনির ক্যামেরায় উঠে আসে জেলার আদিবাসীদের ঐতিহ্যবাহী রূপ।

পানের ঝুড়ি পিঠে খাসিয়া তরুণী। ছবিটি মৌলভীবাজারের একটি পানপুঞ্জি থেকে তোলা।

পানজুম থেকে তোলা পান বাড়িতে নিয়ে যাওয়া। সেখানে সংরক্ষিত পান যাচাই-বাছাই করে বেঁধে বাজারজাত করা হবে। পানজুম এলাকায় কয়েকবারই এই পানের ঝুড়ি পিঠে নিয়ে ওঠা-নামা করতে হয় খাসিয়া শ্রমিকদের।

মৌলভীবাজারের পানজুমগুলোতে দেখা যায় খাসিয়াদের। তাদের রয়েছে নিজস্ব সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য। ছবিতে দেখা যাচ্ছে ঐতিহ্যবাহী পোশাকে কিছু খাসিয়া তরুণী। 

চা শ্রমিকদের 'ফাগুয়া' উৎসব। তারা এই উৎসবে নাচ গানে মেতে ওঠে। খেলা হয় তাদের ঐতিহ্যবাহী লাঠিখেলা।

গারো সম্প্রদায়ের 'ওয়ানগালা' উৎসব। গারোরা ‘মান্দি’ যার অর্থ মানুষ বলে নিজেদের পরিচয় দেয়। মৌলভীবাজারসহ সিলেটের বিভিন্ন অঞ্চলে এদের দেখা যায়। তাদের আদি ধর্মের নাম সাংসারেক। 

মণিপুরী সংস্কৃতি অত্যন্ত সমৃদ্ধশালী যার মধ্যে প্রধান হচ্ছে এদের গীত ও অপূর্ব নৃত্য। অপোকপা এবং চৈতন্য ধারার সনাতনী ধর্মমতে বিশ্বাস করে। দোল পূর্ণিমায় মুক্তমাঠে নৃত্য করে। এদের অন্যতম উৎসব রাসপূর্ণিমা। ছবিতে রনজিৎ জনির ক্যামেরার চোখে ওঠে এসেছে বেনীরাস উৎসবে এক নৃত্যরত তরুণীর দৃশ্য।

মণিপুরীদের ভাষা মেইতেই লন। এরা বিষ্ণুপ্রিয়া, মৈতৈ ও পাঙন নামক শ্রেণিতে বিভক্ত। অত্যন্ত সমৃদ্ধশালী এদের সংস্কৃতি, যার অধিকাংশটা জুড়েই রয়েছে তাদের গান ও নাচ।

সাঁওতাল সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যবাহী নৃত্য। তারা নিজেরা এই নৃত্যকে 'ঝুমুর নাচ' বলে পরিচয় দেয়। তেভাগা ও স্বদেশী আন্দোলন এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের পাশাপাশি নানা ঐতিহাসিক ঘটনায় সাঁওতালদের সক্রিয় অংশগ্রহণ রয়েছে। তারা তাদের পরিচয় দেয় ‘হড়’—অর্থাৎ মানুষ হিসেবে।

আইনিউজ/এসডি

Green Tea
সর্বশেষ
জনপ্রিয়