ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৩ মে ২০২১,   বৈশাখ ৩০ ১৪২৮

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১১:০৯, ২৯ এপ্রিল ২০২১
আপডেট: ১২:১১, ২৯ এপ্রিল ২০২১

শঙ্খ ঘোষের পর করোনায় চলে গেলেন তার স্ত্রীও

পশ্চিমবঙ্গের প্রখ্যাত কবি শঙ্খ ঘোষের মৃত্যুর ৮ দিন পর চলে গেলেন তার স্ত্রী প্রতিমা ঘোষও। স্বামীর সাথে তিনিও করোনা আক্রান্ত ছিলেন। 

বৃহস্পতিবার (২৯ এপ্রিল) ভোর ৫টার দিকে মৃত্যু হয় প্রতিমা ঘোষের। 

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, শঙ্খ ঘোষের মৃত্যুর পরে শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হয় প্রতিমাদেবীরও। বাড়িতেই নিভৃতবাসে ছিলেন তিনি। বয়স হয়েছিল ৮৯ বছর।

উল্লেখ্য, গত ১৪ এপ্রিল শঙ্খ ঘোষের করোনা পজিটিভ আসে। করোনা ছাড়াও বার্ধক্যজনিত কারণে অসুস্থতায় ভুগছিলেন কবি। পরে ২১ এপ্রিল মৃত্যুবরণ করেন শঙ্খ ঘোষ

দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়, ইউনিভার্সিটি অব আইওয়া এবং বিশ্বভারতীর মতো প্রতিষ্ঠানে অধ্যাপনা করেছেন। ১৯৯২ সালে তিনি যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অবসরগ্রহণ করেন।

বছর দুয়েক আগে ‘মাটি’ নামের একটি কবিতায় মোদি সরকারের মুসলিমবিদ্বেষী নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে গর্জে উঠেছিলেন তিনি।

সাহিত্যজীবনে একাধিক সম্মানে সম্মানিত হয়েছেন শঙ্খ ঘোষ। ১৯৭৭ সালে ‘বাবরের প্রার্থনা’ কাব্যগ্রন্থটির জন্য তিনি ভারতের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সাহিত্য পুরস্কার ‘সাহিত্য অকাদেমি’ পুরস্কার পান। ১৯৯৯ সালে কন্নড় ভাষা থেকে বাংলায় ‘রক্তকল্যাণ’ নাটকটি অনুবাদ করে ফের সাহিত্য অকাদেমি পুরস্কার পান তিনি। এ ছাড়াও রবীন্দ্র পুরস্কার, সরস্বতী সম্মান, জ্ঞানপীঠ পুরস্কার পেয়েছেন। ২০১১ সালে তাকে পদ্মভূষণে সম্মানিত করে ভারতের তৎকালীন সরকার।

আইনিউজ/এসডি

Green Tea
সর্বশেষ
জনপ্রিয়