ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৭ জানুয়ারি ২০২২,   মাঘ ১৪ ১৪২৮

আইনিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৫:১৪, ১০ ডিসেম্বর ২০২১
আপডেট: ১৫:১৭, ১০ ডিসেম্বর ২০২১

বাংলাদেশ রেলওয়েতে নতুন নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ, চাকরি পাবেন ১০৮৬ জন

বাংলাদেশ রেলওয়েতে নতুন নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটির ‘খালাসী’ পদে স্থায়ীভিত্তিতে চাকরি পাবেন ১০৮৬ জন। পদটিতে যোগ্য নারী-পুরুষ যে কেউ আবেদন করতে পারবেন। আবেদন শুরু হচ্ছে আগামী ২০ ডিসেম্বর থেকে, শেষ হবে ২০২২ সালের ২৬ জানুয়ারি। 

রেলওয়ের নতুন নিয়োগে পাবনা ও লালমনিরহাট জেলা ব্যতিত সকল জেলার প্রার্থীগণ আবেদন করতে পারবেন। তবে এতিম ও শারীরিক প্রতিবন্ধী এবং রেলওয়ে পোষ্য কোঠা সকল জেলার প্রার্থীগণ আবেদন করতে পারবেন। 

  • প্রতিষ্ঠানের নাম: বাংলাদেশ রেলওয়ে 
  • পদের নাম: খালাসী (গ্রেড-২০) 
  • পদসংখ্যা: ১০৮৬ জন
  • বয়স: ১৮-৩০ বছর। বিশেষ ক্ষেত্রে ৩২ বছর
  • বেতন: ৮২৫০-২০,০১০ টাকা
  • শিক্ষাগত যোগ্যতা: কোনো স্বীকৃত শিক্ষা বোর্ড থেকে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ 
  • আবেদন নিয়ম: আগ্রহী প্রার্থীরা br.teletalk.com.bd এর মধ্যেমে আবেদন করতে পারবেন।
  • আবেদনের সময়সীমা: ২০ ডিসেম্বর ২০২১ সকাল ১০ টা থেকে ২৬ জানুয়ারি ২০২২ বিকেল ৫ টা পর্যন্ত 

নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিটি <<দেখতে ক্লিক করুন  

রেলওয়েতে ‘খালাসী’ পদের কাজ কি? 

বাংলাদেশ রেলওয়ের চতুর্থ শ্রেণির পদ খালাসী। রেলের মাধ্যমে আসা মালামাল নামানো; ট্রেনের বগি ও ইঞ্জিন রুম পরিষ্কার, স্টেশন পরিস্কার, রেলের পাতের পাথর এলোমেলো বা সরে গেলে সেগুলোর লেভেল সমান করতে হয়।

চলমান আছে যে আবেদন 

বাংলাদেশ রেলওয়েতে বর্তমানে পয়েন্টম্যান পদের জন্য আবেদন চলমান রয়েছে। আগামী ২৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত আগ্রহীরা আবেদন করতে পারবেন।

  • পদের নাম: পয়েন্টম্যান (গ্রেড-১৮)
  • পদ সংখ্যা: ৭৬২ জন
  • যোগ্যতা: যে কোনো স্বীকৃত বোর্ড থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাস।
  • বেতন: ৮,৮০০ থেকে ২১,৩১০ টাকা 
  • চাকরির ধরন: স্থায়ী
  • কাজের ধরন: ফুল টাইম
  • বয়স: ১৮-৩০ বছর। বিশেষ ক্ষেত্রে ৩২ বছর
  • আবেদনের শেষ সময়: ২৮ ডিসেম্বর ২০২১ বিকাল ৫টা পর্যন্ত
  • আবেদনের নিয়ম: আগ্রহী প্রার্থীরা br.teletalk.com.bd এর মধ্যেমে আবেদন করতে পারবেন।

পয়েন্টম্যান পদের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি <<দেখতে ক্লিক করুন 

বাংলাদেশ রেলওয়ে

বাংলাদেশ রেলওয়ে হচ্ছে বাংলাদেশের একটি রাষ্ট্র-মালিকানাধীন ও রাষ্ট্র-পরিচালিত রেল পরিবহন সংস্থা। এর সদর দপ্তর ঢাকায় অবস্থিত। ১৯৯০ খ্রিষ্টাব্দে এই সংস্থা নব্য প্রতিষ্ঠিত রেলপথ মন্ত্রণালয়ের অধীন নিজের কার্যক্রম পরিচালনা করে। মোট ২৫০৮৩ জন নিয়মিত কর্মচারীসহ বাংলাদেশ রেলওয়ের মোট ২৯৫৫.৫৩ কিমি রুট রয়েছে।

বাংলাদেশ রেলওয়ে বাংলাদেশের রেল পরিবহন ব্যবস্থার সিংহভাগ পরিচালনা করে। তবে এর পাশাপাশি বেসরকারি সংস্থাগুলোরও অংশগ্রহণ রয়েছে। যেমন, খাদ্য ও পানীয়ের ক্যাটারিং, কিছু নির্বাচিত রুট ও ট্রেনের রেলওয়ে রিজার্ভেশন ও টিকেটিং ব্যবস্থা এবং প্রধান রেলপথসমূহে ফাইবারঅপটিক কেবল স্থাপন, পরিচালন ও রক্ষনাবেক্ষনের কাজ বেসরকারি সংস্থার ওপর দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশে বর্তমানে দুই ধরনের রেলপথ চালু আছে: ব্রড-গেজ (৫ ফুট ৬ ইঞ্চি বা ১,৬৭৬ মি.মি.) এবং মিটার-গেজ (১০০০ মি.মি.)। 

বাংলাদেশে রেলওয়ের কার্যক্রম শুরু হয় ব্রিটিশ শাসনামলে, ১৮৬২ সালে। ঊনবিংশ শতাব্দীতে ইংল্যান্ডের বিভিন্ন রেল কোম্পানি ভারতবর্ষের বিভিন্ন প্রদেশে ছোট ছোট রেলপথ সেকশন চালু করতে থাকে। প্রথমদিকে শুধুমাত্র অর্থনৈতিক কাজের জন্য রেলপথ চালু করা হয়। ইস্টার্ন বেঙ্গল রেলওয়ে নামক কোম্পানি প্রথম বাংলাদেশে রেলপথ স্থাপন করে। ১৮৬২ সালের ১৫ই নভেম্বর চুয়াডাঙ্গার দর্শনা থেকে কুষ্টিয়ার জগতি পর্যন্ত রেলপথ স্থাপনের মাধ্যমে বাংলাদেশ রেল যুগে প্রবেশ করে। তথ্যসূত্র: উইকিপিডিয়া 

আরও চাকরির খবর << জানতে ক্লিক করুন 

দুবাইয়ে লটারি জিতে একরাতে কোটিপতি বাংলাদেশী যুবক | দুবাই প্রবাসী

ঘুরে আসুন মৌলভীবাজারের পাথারিয়া পাহাড়

Green Tea
সর্বশেষ
জনপ্রিয়