ঢাকা, রোববার   ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১,   আশ্বিন ৪ ১৪২৮

লাইফস্টাইল ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৬:৪৭, ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১
আপডেট: ২৩:৫৩, ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১

খুলছে স্কুল: অভিভাবকদের করণীয়

দেশে ২০২০ সালের ৮ মার্চ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য বিবেচনায় সেই বছরের ১৮ মার্চ থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করে সরকার। এরপর কয়েক ধাপে সেই ছুটি বাড়তে থাকে। অবশেষে দেড় বছর পর রোববার থেকে দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো খুলছে। 

দেশে করোনা শনাক্তের হার কমলেও আতঙ্কে রয়েছেন অভিভাবকরা। অনেকেই করোনা মহামারীর মধ্যে শিশুদের স্কুল পাঠানো নিয়ে চিন্তিত। 

যদিও করোনাকালে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিচালনায় নির্দেশনা দিয়েছে সরকার। একইসাথে সেগুলো পালন নিশ্চিত ও সঠিকভাবে অনুসরণের নির্দেশও রয়েছে। তবুও শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য বা সুরক্ষার দিকে অভিভাবকের নজর রাখা জরুরি।

এক্ষেত্রে অভিভাবকের জন্য রইল কিছু পরামর্শ-

মানসিক সচেতনতা

দীর্ঘদিন বাসায় অনলাইনে ক্লাস করার পর স্কুলে যেতে অনেক শিশু অনীহা বোধ করতে পারে। তাই সন্তানের সঙ্গে খোলাখুলি কথা বলুন। বর্তমান পরিস্থিতিতে সম্পর্কে তাকে অবগত করুন। সম্ভব হলে নিজেই প্রথম কয়েকদিন স্কুলে পৌঁছে দিন।

সুরক্ষা সামগ্রী

সরকারি নির্দেশনাগুলো সন্তানের সঙ্গে শেয়ার করুন। কিভাবে স্কুলে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবে সে বিষয়ে পরামর্শ দিন। কিছু নিয়মের পরিবর্তন যেমন- মাস্ক পরে থাকা বা শিক্ষক-বন্ধুদের থেকে দূরত্ব মেনে চলা। এমন বিষয়গুলো স্বাভাবিক, তা সন্তানকে বোঝান। এই সব নিয়ম মেনে চললে সে সুস্থ থাকবে তাও তাকে বোঝানো প্রয়োজন। বারবার হাত ধোয়া বা স্যানিটাইজ করা যে সবার স্বাস্থ্যের ভালো তাও বোঝান। স্কুল ব্যাগে মাস্ক, স্যানিটাইজারের মত প্রয়োজনীয় সুরক্ষা সামগ্রী দিয়ে দিন।

সময় দিন

করোনার কারণে স্বাভাবিক জীবনযাপনে অনেক পরিবর্তন এসেছে। আপনার সন্তান স্কুল যাওয়া শুরু করলে তার স্বাস্থ্য, পড়াশোনা, মানসিক স্বাস্থ্য, আচার-আচরণের প্রতি বিশেষ নজর রাখুন। সে কোনো মানসিক সমস্যায় ভুগছে কিনা সে দিকে খেয়াল রাখুন। হতে পারে দুঃখ, রাগ, মনোযোগের সমস্যা, খেলায় অনীহা বা হোমওয়ার্ক করতে অনীহা হচ্ছে। এমন সময় সন্তানের পাশে থাকুন। তাকে সময় দিন।

ঘুমের অভ্যাস

দীর্ঘ সময় বাসায় থাকার কারণে শিশুর ঘুমের অভ্যাস পরিবর্তন হওয়া খুব স্বাভাবিক। অনেকের ‘মর্নিং শিফট’ এর ক্লাসে ফিরতে সমস্যা হতে পারে। এজন্য শিশুকে রাতে তাড়াতাড়ি ঘুমিয়ে যাওয়ার অভ্যাস করুন। প্রয়োজনীয় সময়ে তাকে জেগে উঠার অভ্যাস করান। স্কুলের যাওয়ার আগের সন্ধ্যায় শিশুদের রিল্যাক্স রাখার চেষ্টা করুন।

আইনিউজ/এসডিপি 

Green Tea
সর্বশেষ
জনপ্রিয়