ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৭ জানুয়ারি ২০২২,   মাঘ ১৩ ১৪২৮

জি এম ইমরান, শাবি প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৮:৪২, ২৫ নভেম্বর ২০২১
আপডেট: ১৯:২০, ২৫ নভেম্বর ২০২১

শাবি কর্মকর্তা যখন ছাত্রলীগের গ্রুপ লিডার!

দীর্ঘদিন ধরে কমিটি নেই শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের। পদ প্রত্যাশী রয়েছেন শাখা ছাত্রলীগের বিভিন্ন গ্রুপের একাধিক নেতৃবৃন্দ। এমনই পদ প্রত্যাশী ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের একটি গ্রুপের লিডার সাবেক কমিটির যুগ্ম সাধারণ-সম্পাদক মৃন্ময় দাস ঝুটন।

তবে কমিটির জন্য দীর্ঘদিন অপেক্ষায় থেকে কোন সুরাহা না পেলেও ছাত্রলীগের রাজনীতির ব্যবহার করে চলতি বছরের আগস্ট মাসে বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিট এন্ড একাউন্টস অফিসার হিসেবে যোগদান করেন ছাত্রলীগের সাবেক এ নেতা। কিন্তু তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ পেয়েও এখনো প্রত্যক্ষভাবে তার গ্রুপকে পরিচালনা করছেন বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন খোদ তার গ্রুপেরই অনেক নেতাকর্মী। 

জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয় কর্মকর্তা হিসেবে যোগদানের পর প্রথমে তার গ্রুপের দায়িত্ব দেন প্রশান্ত সরকারকে। তবে অদৃশ্য কারণে তাকে হটিয়ে দেওয়া হয়। পরবর্তীতে এই গ্রুপে সক্রিয় হন নারী উত্ত্যক্তকারী ও মাদকসেবনের দায়ে অভিযুক্ত মেহেদী হাসান স্বাধীন নামে আরেক নেতা। তবে স্বাধীনকে পুরো গ্রুপ নিয়ন্ত্রনের দায়িত্ব দেননি ঝুটন। এদিকে ছাত্রলীগের দুই নেতা শাহাদাত হোসেন সীমান্ত এবং রুবেল মিয়া ওরফে ফারহান রুবেল  আরেকটি গ্রুপ থেকে এসে এই গ্রুপে সক্রিয় হন। তবে এই দুজনও গ্রুপটির নেতৃত্বে আসতে পারেনি। আর এসবের পেছনে প্রত্যক্ষ মদদ রয়েছে মৃন্ময় দাশ ঝুটনের। বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা হয়েও তিনি গ্রুপটির রাজনীতি পুরোপুরি  নিয়ন্ত্রন করছেন বলে জানা যায়।

শাবির আইন ১৯৮৭ এর (৫১)২ ধারা অনুযায়ী, ‘‘বিশ্ববিদ্যালয়ের কোন শিক্ষক বা কর্মকর্তার রাজনৈতিক মতামত পোষণের ক্ষমতা ক্ষুন্ন না করিয়া তাহার চাকরির শর্তাবলি নির্ধারণ করিতে হইবে। তবে তিনি তাহার উক্ত মতামত প্রচার করিতে পারিবেন না বা কোন রাজনৈতিক সংগঠনের সহিত জড়িত থাকতে পারবেন না।’’ 

কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ের এ আইন অমান্য করে ঝুটন প্রতিনিয়ত শিক্ষকদের সাথে শাখা ছাত্রলীগের বিভিন্ন মিটিংয়ে যোগদান করার পাশাপাশি ফেসবুক ওয়ালে নিয়মিত রাজনৈতিক পোস্ট, বিভিন্ন প্রোগ্রামে প্রকাশ্যে অংশগ্রহণ ও স্লোগান দিয়ে বেড়াচ্ছেন বলে জানা যায়। সেই সাথে তিনি কেন্দ্রীয় নেতাদের সাথে লিয়াজু ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভাবশালী কিছু শিক্ষকের সহায়তায় হস্তক্ষেপ করছেন ছাত্রলীগের বিভিন্ন গ্রুপের ইন্টারনাল বিষয়গুলোতেও। এ বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা দেখা গেছে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীদের।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ছাত্রলীগের কয়েকটি গ্রুপের নেতাদের অভিযোগ, মূলত বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কিছু উচ্চপদস্থ শিক্ষকের প্রত্যক্ষ মদদ থাকার ফলেই এমনটি করার সুযোগ পাচ্ছেন এই কর্মকর্তা। আর সেই শিক্ষকদের কারণে ভয়ে তার ব্যাপারে কেউ মুখ খোলারও সাহস পায় না। এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ারও আহ্বান জানান তারা। 

অভিযোগের ব্যাপারে মৃন্ময় দাস ঝুটন বলেন, করোনা থাকায় আমি  যে গ্রুপে ছিলাম সে গ্রুপের দায়িত্ব হস্তান্তর করতে পারিনি। কিছুদিন আগে দায়িত্ব হস্তান্তরে যেয়ে শেষ গ্রুপ মিটিং করে তাদের দায়িত্ব বুঝিয়ে দিয়ে আসি। তাদের সবাইকে ডেকে অফিসিয়ালি আর কোনদিন কোন প্রোগ্রামে যেন আমার না যাওয়া লাগে সে ব্যবস্থা করে আসছি।

শিক্ষকদের সাথে শাবি ছাত্রলীগের বিভিন্ন মিটিংয়ে উপস্থিত থাকার ব্যাপারে শাবির এ কর্মকর্তা বলেন, আমার অফিস টাইম ৯-৫টা পর্যন্ত কখনো খাওয়া ছাড়া বের হই না। ৫টার পরে বের হয়ে স্যারদের যদি সালাম দিতে যাই, সেখানে গিয়ে যদি দেখি ছাত্রলীগ কথাবার্তা বলে আমি সেখান থেকে চলে আসি।

এখনো ছাত্ররাজনীতির সাথে এ কর্মকর্তার প্রত্যক্ষভাবে যুক্ত থাকার বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিন্যান্স ডিরেক্টর আ ন ম জয়নাল আবেদিন বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের কেউ সরাসরি রাজনীতিতে জড়িত হতে পারবে না এটা সত্য। কিন্তু তিনি (ঝুটন)  রাজনীতি করে কিনা আমি জানি না। তবে তিনি যদি জড়িত থাকেন তাহলে যারা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে কিংবা তার এটা করা ঠিক না মনে করছে তারা সরাসরি বিশ্ববিদ্যালয় অথোরিটির সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মুহাম্মদ ইশফাকুল হোসেন বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় আইন অনুযায়ী কেউ রাজনীতির সাথে মত পোষণ করতে পারবেন। কিন্তু প্রচার করতে পারবেন না। 

শাবি কর্মকর্তা ঝুটনের ব্যাপারে তিনি বলেন, আমাদের কাছে এ ধরণের কোন অভিযোগ আসে নাই। আসলে খতিয়ে দেখবো।

আইনিউজ/জিএম ইমরান/এসডি

আইনিউজ ভিডিও

মৌলভীবাজারে ১৩৩ টাকায় পুলিশে চাকরি পেলেন ৪০ বেকার তরুণ

বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক উৎসবে মুগ্ধ বিদেশিনী

দু’সপ্তাহে সাতটি হাতির মৃত্যু, বাংলাদেশ থেকে বিলুপ্তির আশঙ্কা

‘চোরাকারবারির বাড়ি’ সাইনবোর্ড অমানবিক : বিজিবির প্রতি ক্ষোভ ব্যারিস্টার সুমনের

এছাড়াও যে কোনও ভিডিও সংবাদের জন্য ভিজিট করুন আইনিউজের ভিডিও আর্কাইভস

Green Tea
শিক্ষা ও ক্যাম্পাস বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
সর্বশেষ
জনপ্রিয়