ঢাকা, রোববার   ১৭ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ২ ১৪২৮

শাবি প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২১:৫৪, ২১ জানুয়ারি ২০২১
আপডেট: ১৮:০৫, ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১

‘বাঁচতে চাইলে পরীক্ষায় এ্যাটেন্ড কর’, ছাত্রীকে শাবি শিক্ষক

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

‘শোন, আমার সাথে তুমি আর একটা কথা বলবা না। তুমি যদি বাঁচতে চাও, এখনই পরীক্ষায় এ্যাটেন্ড করবা। না হলে, তোমার ড্রপ (কোর্স) হয়ে যাবে। আমি তোমাকে সেভ করতে পারবো না।’ এভাবে নিজ বিভাগের এক শিক্ষার্থীকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মো. মোখলেছুর রহমানের বিরুদ্ধে।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) সকাল নয়টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে ইনায়া ম্যানশনের চতুর্থ তলায় ছাত্রীদের মেসে তালা ভেঙ্গে প্রবেশ করে বহিরাগত এক যুবক। এসময় মেসে অবস্থানরত এক ছাত্রী বহিরাগত যুবককে ছাত্রীমেসের গেটের তালা ভেঙ্গে অবৈধভাবে প্রবেশের কারণ জানতে চাইলে তিনি ছাত্রীর সাথে অসাদাচরণ করতে থাকেন।

সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিতব্য ফাইনাল পরীক্ষার কিছুক্ষণ পূর্বে এ ঘটনায় মানসিকভাবে মুষড়ে পড়েন মেসে অবস্থানরত শাবির নৃবিজ্ঞান বিভাগের ঐ শিক্ষার্থী।

এ সময় মেসে অবস্থানরত আরেক শিক্ষার্থী নৃবিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধানকে এ ঘটনা অবহিত করার জন্য ফোন দেন। তবে বিভাগীয় প্রধান শিক্ষার্থীর ফোন রিসিভ করে একই বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মো. মোখলেছুর রহমানকে শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলতে বলেন। এসময় সহযোগী অধ্যাপক মো. মোখলেছুর রহমান বিভাগীয় প্রধানের ফোন নিয়ে শিক্ষার্থীদের সাথে এ ধরণের হুমকিস্বরূপ কথা বলেন।

এসময় মেসে অবস্থানরত শিক্ষার্থী অসুস্থ শিক্ষার্থীকে একা রেখে, পরীক্ষা না দিয়ে তাকে বিশেষ ব্যবস্থা করার ব্যাপারে কথা বলতে চাইলে, অধ্যাপক মো. মোখলেছুর রহমান বলেন, তুই তোর দায়িত্ব পালন কর। কাকলীকে (ছদ্মনাম) তুই ফেলে দিয়ে আয়। নিজে বাঁচ। মূর্খ কোথাকার।
শিক্ষার্থীদের সাথে এ ধরনের আচারণের কারণ জানতে সহযোগী অধ্যাপক মো. মোখলেছুর রহমানকে একাধিকবার ফোন দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।

তবে, শিক্ষার্থীদের সাথে সহযোগী অধ্যাপক মো. মোখলেছুর রহমান এ ধরণের আচরণ করতে পারেন কিনা? নৃবিজ্ঞান বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. নূর মোহাম্মদ মজুমদারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, তাকে কোন (সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. মোখলেছুর রহমান) হুমকি-ধামকি দেয় নাই। শিক্ষকের জায়গা থেকে বলছে (সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. মোখলেছুর রহমান) তোমরা পরীক্ষা দিতে আসো। ড্রপ দিওনা। এটাই বলছে আমার জানামতে।

অন্যদিকে, বহিরাগত যুবককে গৃহে অনুপ্রবেশের দায়ে মামলা দায়ের করে কোর্টে চালান করা হয়েছে বলে জানান, জালালাবাদ থানার ওসি নাজমুল হুদা খান। 

জিএম ইমরান/ শাবি প্রতিনিধি/ আইনিউজ

Green Tea
শিক্ষা ও ক্যাম্পাস বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
সর্বশেষ
জনপ্রিয়