ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২১ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ৬ ১৪২৮

ডেস্ক নিউজ

প্রকাশিত: ০০:৪৫, ১৪ জুন ২০২০

সুনামগঞ্জে একদিনে ৯২ জনের করোনা পজেটিভ

সিলেটে প্রতিদিনই বাড়ছে করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। এদিক দিয়ে পিছিয়ে নেই হাওরের বেষ্টিত জেলা হিসেবে খ্যাত সুনামগঞ্জ। প্রতিদিন নতুন করে আক্রান্ত সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ার চলমান যাত্রায় এবার নতুন রেকর্ড হিসেবে একদিনে ৯২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে সুনামগঞ্জে মোট করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫২৫ জনে।

শনিবার (১৩ জুন) রাজধানী ঢাকা ও সিলেটে শাবির ল্যাবে পৃথকভাবে ২৮২ ও ২০৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হলে সেখানে ৯২ জনের নমুনায় করোনা পজিটিভ আসে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিভিল সার্জন ডা. শামস উদ্দিন।

সিভিল সার্জন সূত্রে জানা যায়, সিলেটে নমুনা জট থাকায় সিলেট বিভাগের বেশ কয়েকটি নমুনা ঢাকায় প্রেরণ করা হলে সেখান থেকে সুনামগঞ্জের ২৮২টি নমুনা পরীক্ষা করা হলে ৩১ জনের করোনা শনাক্ত হয় পরবর্তীতে সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পিসিআর ল্যাবে আরও ২০৩ টি নমুনা পরীক্ষা করা হলে সেখান থেকে ৬১ জনের করোনা শনাক্ত হয়। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলায় ৩৪ জন, ছাতক উপজেলায় ৩০ জন, জামালগঞ্জ উপজেলায় ১৮ জন, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলায় ৪ জন, বিশ্বম্ভরপুর উপজেলায় ২ জন, তাহরপুর উপজেলায় ২ জন এবং শাল্লা উপজেলার একজন রয়েছেন।

অন্যদিকে, সুনামগঞ্জে করোনা আক্রান্ত রোগী গেল ২৪ ঘণ্টা আগেও ছিলো ৪৩৩ জনে। ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে তা ৫২৫ জনে দাঁড়িয়েছে। নতুন আক্রান্ত হওয়াদের মধ্যে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার নতুন পাড়া এলাকার একই পরিবারের ৭ জন রয়েছেন। তাদের পরিবারের এক ব্যক্তি প্রথমে করোনা শনাক্ত হলে পরবর্তীতে তাদেরও করোনা শনাক্ত হয়। এছাড়া সদর উপজেলার আরপিন নগর এলাকা আরও একটি পরিবারের ৬ জন করোনা শনাক্ত হয়েছেন বলে জানাযায়। এছাড়া বিচ্ছিন্নভাবে সুনামগঞ্জের বিভিন্ন উপজেলায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়া এখন পর্যন্ত করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ১০০ জন এবং মারা গিয়েছেন ৪ জন।

সুনামগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. শামস উদ্দিন বলেন, আজকে সুনামগঞ্জে রেকর্ড সংখ্যক করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। তাদের প্রত্যেকেই আমরা বাড়িতে আইসোলেশনে রাখা হবে যদি না তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। এছাড়া তাদের সংস্পর্শে যাওয়া সকলের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে।

উল্লেখ্য, সুনামগঞ্জে গেল ১২ এপ্রিল প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। প্রথমদিন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হওয়ার পর লকডাউন করেছিলো প্রশাসন। বর্তমানে লকডাউন পরিস্থিতি তুলে দেওয়ার পর থেকে ক্রমান্বয়ে বাড়তে থাকে করোনা আক্রান্ত রোগী সংখ্যা। যার আজ শনিবার রেকর্ড সংখ্যক ৯২ জনে গিয়ে দাঁড়িয়েছে।

Green Tea
সর্বশেষ
জনপ্রিয়