ঢাকা, বুধবার   ১৮ মে ২০২২,   জ্যৈষ্ঠ ৩ ১৪২৯

নিজস্ব প্রতিবেদক, আইনিউজ

প্রকাশিত: ১৪:৫৫, ২৬ জানুয়ারি ২০২২
আপডেট: ১৫:০৩, ২৬ জানুয়ারি ২০২২

জাফর ইকবাল বললেন, ‘শিক্ষার্থীদের আমি টাকা দিলাম, আমাকে এরেস্ট করুক’

শিক্ষার্থীদের সাথে ড. মুহাম্মদ জাফর ইকবাল

শিক্ষার্থীদের সাথে ড. মুহাম্মদ জাফর ইকবাল

বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকীর একটা স্মারকগ্রন্থে আমার কাছে একটা লেখা চেয়েছিল। সেই লেখাটার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে আমাকে দশ হাজার টাকা সম্মানী দেওয়া হইছে। আমি এই সম্মানীর টাকাটা নিয়ে আসছি, এই আন্দোলনের ফান্ডে এই টাকাটা দিচ্ছি, তোমরা রাখো।

 

১৬ জানুয়ারি থেকে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবিপ্রবি) চলমান আন্দোলনে উপাচার্যদের ঘুম নষ্ট হয়ে গেছে বলে মন্তব্য করলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ জাফর ইকবাল। বুধবার ভোরে স্ত্রী ড. ইয়াসমিন হকসহ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে প্রবেশ করে তিনি শিক্ষার্থীদের সাথে দেখা করেন।

তিনি বলেন, ‘আমি আসলে এসেছি শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলতে। আমি খুব ইমোশনাল, আমার চোখে পানি চলে আসে। ওরা (সাবেক পাঁচ শিক্ষার্থী) টাকা-পয়সা দেওয়ায় গ্রেপ্তার হয়েছে। তোমাদেরকে সাহায্য করতে যদি অ্যারেস্ট হতে হয় তাহলে আমি হব। বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকীর একটা স্মারকগ্রন্থে আমার কাছে একটা লেখা চেয়েছিল। সেই লেখাটার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে আমাকে দশ হাজার টাকা সম্মানী দেওয়া হইছে। আমি এই সম্মানীর টাকাটা নিয়ে আসছি, এই আন্দোলনের ফান্ডে এই টাকাটা দিচ্ছি, তোমরা রাখো। এবার পারলে আমাকে অ্যারেস্ট করুক। সাবেক শিক্ষার্থীরা টাকা দিয়ে সহায়তা করায় অ্যারেস্ট হলে আমাকেও অ্যারেস্ট করুক। আমি দেখতে চাই সিআইডি আমাকে অ্যারেস্ট করে কিনা।’

কিছুক্ষণ পর জাফর ইকবাল এক প্রেস ব্রিফিং করে সেখানে জানান, ‘আমাদের এরকম ভাইস-চ্যান্সেলররা আছেন যাদের আদর্শ এত বেশি যে উনারা অন্যর সহমর্মিতায় নিজেরা পদত্যাগ করবেন। কিন্তু আমার মনে হয়না আমার এ আশা সহজে মিটবে। তোমরা বড়ধরনের নাড়া দিয়েছো। এখন কাউকে কোথাও ভিসি পদে বসানো হলে  তার যোগ্যতা নিয়ে সবাই চুলচেড়া বিশ্লেষণ করবে।’

আইনিউজ/এমজিএম

আইনিউজ ভিডিও 

শাবিপ্রবি শিক্ষককে ফেনসিডিল সাপ্লাই দিতে গিয়ে গার্ড আটক!

`প্রাণ দেবো, তবু ভিসির পদত্যাগ চাই` | কাফন মিছিলে শাবিপ্রবি শিক্ষার্থীরা | Eye News

শিক্ষার্থীরা লড়ছে মৃত্যুর সাথে, অসুস্থদের অ্যাম্বুলেন্সে নেওয়া হচ্ছে হাসপাতালে

Green Tea
সর্বশেষ
জনপ্রিয়