ঢাকা, রোববার   ১৭ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ২ ১৪২৮

শেলী সেনগুপ্তা

প্রকাশিত: ২১:১৬, ২৬ জুলাই ২০২১
আপডেট: ২৩:৪০, ২৬ জুলাই ২০২১

অক্ষয় মশালবাহী এক মানব-কথন

পৃথিবী সৃষ্টির পর, যখন প্রাণের অস্তিত্ব পাওয়া গেল তখন থেকেই চলছে জন্ম নামক অতিপ্রাকৃত ঘটনার বিকাশ। সেই ধারাতে মানুষ জন্মগ্রহণ করে, বেড়ে ওঠে, লতায়-পাতায় লালিত্য ছড়িয়ে দেয় পৃথিবীর বুকে। এমনই এক জন্ম-কথা আলোচনায় আসতেই পারে, যদি সেখানে থাকে জীবনদর্শিত ত্রশরেনু, যদি থাকে যাপিত জীবনের মধুরিমা, যদি থাকে স্বনিয়ন্ত্রিত সুললিত সুর।

এমনই এক মানবের জন্ম হয়েছিলো ২৭ জুলাই। তিনি একজন কবি, সাংবাদিক ও চলচ্চিত্র অভিনেতা, জন্মেছিলেন অপরিমেয় মানবিক ও সুকোমল বৃত্তির অধিকারী হয়ে, তিনি সৌমিত্র দেব।

সিলেটের মৌলভীবাজারে জন্মগ্রহণকারী সাহিত্যাঙ্গনে স্বমহিমায় উদ্ভাসিত। সাহিত্যের প্রায় সকল শাখায় বিচরণ করেছেন। হয়তো জন্মমাটির টানে লোক সাহিত্য তাকে মোহিত করে রেখেছিলো। তাঁকে দিয়ে করিয়ে নিয়েছিলো এমনসব কাজ যা একমাত্র তাঁর পক্ষেই সম্ভব।

বাংলার লোকসাহিত্য বিশেষিত সিলেটের প্রাণপুরুষ হাছন রাজার মহিমা বিকাশে তাঁর বিশেষ অবদান আছে। তাঁর উদ্যোগে ঢাকায় ২০০৯ সালে অনুষ্ঠিত হয় প্রথম জাতীয় হাছন উৎসব । লোক সাহিত্যে তাঁর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বই – মরমী কবি হাছন রাজা ও তার জীবন দর্শন ।

সৌমিত্র দেবের কলম কখনো থেমে থাকে নি, লিখেছেন অনেক কিছুই, তাঁর অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ বইয়ের মধ্যে আছে ডিজিটাল বাংলাদেশ ও বিকল্প গণমাধ্যম, অজবীথি, বন পর্যটক, নীল কৃষ্ণচূড়া, পূর্ব থেকে পশ্চিমে, জলে স্থলে অন্তরীক্ষে, হিমালয় কন্যার হাসি, তুমুল তুষার বৃষ্টি, আগুন পিপাসা, পাথরের চোখ প্রভৃতি।

তিনি যখনই সময় পেয়েছেন সৃষ্টির আনন্দে বিভোর হয়েছেন। এটাকে প্রাতিষ্ঠানিক রুপ দিতে বাংলা একাডেমির তরুণ লেখক প্রকল্পে চতুর্থ ব্যাচে তিনি প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। সেখান থেকে প্রকাশিত হয়েছে তাঁর কবিতার বই- শময়িতাদের বাড়ি । বাংলাদেশ প্রেস ইন্সটিটিউট,এশিয়াটিক সোসাইটি ও বাংলা একাডেমির বিভিন্ন গবেষনা কর্মে তিনি কাজ করেছেন। বাংলা একাডেমি থেকে প্রকাশিত বাংলাদেশের লোকজ সংস্কৃতি গ্রন্থে তিনি একজন লেখক। ৪১ টি প্রকাশিত গ্রন্থের লেখক সৌমিত্র দেব পৃথিবীর বহু দেশে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সাহিত্য সম্মেলনে যোগ দিয়েছেন।

তাঁর কলম সবসময় মানুষের কথা বলতে ব্যাকুল তাই পেশা নির্বাচনেও তিনি দিকভ্রষ্ট হননি। নিজেকে কলম সৈনিক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। বেছে নিয়েছেন সাংবাদিকতা ও লেখালেখিকেই। জাতীয় দৈনিকে তিনি কাজ শুরু করেন প্রথম আলোতে। এর পর টানা ৫ বছর কাজ করেছেন ট্যাবলয়েড দৈনিক মানবজমিনে সহকারী সম্পাদক হিসেবে। বর্তমানে তিনি অনলাইন গণমাধ্যম রেডটাইমস ডট কম ডট বিডির প্রধান সম্পাদক।

মানুষের কথা বলতে বলতে অজান্তেই নিজেকে জড়িয়ে নিয়েছে রাজনীতিতে। জেলা পর্যায়ে নব্বইয়ের ছাত্র গণ আন্দোলনের অন্যতম সংগঠক সৌমিত্র দেব ২০১৫ সালে মৌলভীবাজার পৌরসভায় মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

হাছন রাজার দেশে জন্ম নেয়া এই মানবের রক্তে আছে বাউলিয়ানা, হয়তো তাই ঘুরে বেড়াতে ভালবাসেন, তাই যখনই সুযোগ পেয়েছেন ছুটে গেছেন মানচিত্রের নানা অংশে। চীন,মালেশিয়া , নেপাল ও ভারতে আরো বেশ কিছু অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে উজ্জ্বল করেছেন দেশের ভাবমূর্তিকে। যখন যেখানে গেছেন তাঁর কাঁধে ছিলো দেশের পতাকা, একজন দেশপ্রামিক নাগরিকের সবটুকু দায়ভার সবসময় নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন। সেভাবেই তিনি ২০০৫ সালে তিনি ১০ম উত্তর আমেরিকান বাংলা সাহিত্য ও সংস্কৃতি সম্মেলনে অংশ নেন।

সুশিক্ষিত এবং একই সাথে স্বশিক্ষিত মৌলভীবাজার সরকারি উচ্চবিদ্যালয় থেকে এস এস সি,মৌলভীবাজার সরকারি মহাবিদ্যালয় থেকে এইচ এস সি এবং জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন। এ ছাড়া তিনি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পরিকল্পনা, প্রশাসন ও ব্যাবস্থাপনায় গ্র্যাজুয়েট ট্রেনিং।

সাহিত্যের সব ধারাতে বিচরণ করতে করতে অভিনয় ও চলচ্চিত্র নির্মাণেও যথেষ্ট দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন। সৌমিত্র দেব অভিনীত প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র -নেকাব্বরের মহাপ্রয়াণ জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছে । সম্প্রতি তিনি শিল্পকলা একাডেমির অর্থায়নে নির্মিত রবীন্দ্রনাথের ডাকঘর চলচ্চিত্রে একটি বিশেষ চরিত্রে অভিনয় করেছেন। চলচ্চিত্রে অবদান রাখার জন্য পেয়েছেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি সম্মাননা ২০১৮ । বাংলাদেশ গণগ্রন্থাগার আয়োজিত একুশে প্রতিযোগিতায় তিনি কবিতা বিভাগে চট্রগ্রাম বিভাগীয় পর্যায়ে প্রথম হয়েছিলেন । কবিতার জন্য তিনি পেয়েছেন বাংলাদেশ রাইটার্স ফাউন্ডেশন পদক ২০০৫।

স্বমহিমায় আলোকিত এই মানবের উজ্জ্বল উপস্থিতি সাহিত্যের সকল শাখাকে সমৃদ্ধ করেছে। মা, মাটি ও মানুষের মঙ্গলে তিনি এক অক্ষয় মশালবাহী। যে আলোকরশ্মি তিনি বয়ে নিয়ে যাচ্ছেন তা যেন আরো কয়েকশত বছর তাঁর হাতেই থাকে আন্তরিকভাবে সে প্রার্থনায় করছি। কারণ আমরা বিশ্বাস করি জন্ম গ্রহণে করে অনেকেই কিন্তু মানব জন্মকে সার্থক করে খুব কম জনা, সৌমিত্র দেব সার্থক জন্মা এক মানবের নাম।

শেলী সেনগুপ্তা,  কবি , লেখক ও   প্রেসিডেন্ট রোটারি ক্লাব অব ঢাকা ড্রিমার্স।

Green Tea
সর্বশেষ
জনপ্রিয়