ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২০ জানুয়ারি ২০২২,   মাঘ ৭ ১৪২৮

স্পোর্টস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৩:১৮, ২১ নভেম্বর ২০২১

এতো সমর্থন আগে দেখিনি, মনে হচ্ছে পাকিস্তানেই খেলছি : ফখর জামান

বাংলাদেশে তিন ম্যাচের টি টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে এসে বেশ বড় সংখ্যক বাংলাদেশিদের সমর্থন পেয়েছে পাকিস্তান। গ্যালারিতে নিজের দেশকে সমর্থন না করে তারা ছিলেন পাকিস্তানের জন্য চিয়ার্স করতে। গালে-মুখে পাকিস্তানের পতাকা এঁকে, পাকিস্তানের জার্সি পড়ে, পাকিস্তানের পতাকা হাতে নিয়ে বাংলাদেশের মাঠেই বাংলাদেশি বেশকিছু নাগরিক সমর্থন করেছেন পাকিস্তানকে। তাও আবার এমন ম্যাচে, যেখানে পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলছে বাংলাদশ।

বাংলাদেশি নাগরিকদের এমন 'পাকি-প্রেম' দেখে মুখ খুলেছেন পাকিস্তানি অপেনার ফখর জামান। এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন,  ‘বুঝে উঠতেই পারছেন না’ গ্যালারিতে পাকিস্তানের পক্ষে এতটা সমর্থনের কারণ।

ফখর জামান বলেন,  ২০১৮ সালেও এখানে এসেছিলাম। তখন এত লোককে পাকিস্তান সমর্থন করতে দেখিনি। এখন আবার আমরা মিরপুরে এলাম। যারা এখানে এসে আমাদের সমর্থন দিচ্ছেন, তাদের অসংখ্য ধন্যবাদ। তবে আমার মনে হচ্ছে, বাংলাদেশ না, যেন পাকিস্তানেই খেলা হচ্ছে।

পাকিস্তান ক্রিকেট দলের অফিশিয়াল ইউটিউবে প্রকাশিত সেই ভিডিওতে উচ্ছ্বসিত কণ্ঠে ফখর আরও বলেন, যখন আমরা কোনো উইকেট নিচ্ছি, বা কেউ ভালো শট খেলছে, তখন আমরা এমনভাবেই সমর্থন পাচ্ছি যেমনটা দেশে পেয়ে অভ্যস্ত। বাংলাদেশের মানুষও আমাদের সমর্থন দিচ্ছে। খুবই আনন্দের ব্যাপার এটি।

উল্লেখ্য, প্রথম টি-টোয়েন্টিতে এক পর্যায়ে জয়ের কিঞ্চিৎ আশা বাংলাদেশ জাগাতে পারলেও দ্বিতীয় ম্যাচে আরও বিবর্ণ পারফরম্যান্সে ৮ উইকেটের হারে সিরিজ খোয়ায় বাংলাদেশ। কিন্তু এদিনের ম্যাচেও অর্ধেক পূর্ণ গ্যালারিতে পাকিস্তানের পক্ষে ছিল উল্লেখযোগ্য সমর্থন। গ্যালারিতে ও ম্যাচ শেষে স্টেডিয়ামের বাইরে পাকিস্তানের জার্সি পরে উল্লাস করতে দেখা গেছে অনেক বাংলাদেশিকে।

সাম্প্রতিককালে অনুশীলনে মিরপুরের মাঠে পাকিস্তানের পতাকা ব্যবহার থেকে বিতর্কের সূত্রপাত। এরপর খেলায় ভক্তদের পাকিস্তানের পক্ষে স্লোগান ও পতাকা ওড়ানোকে কেন্দ্র করে বিতর্ক উঠেছে চরমে। ক্রিকেটপাড়া ছাড়িয়ে চায়ের কাপে ঝড় এখন জাতীয় পর্যায়েই।

সামাজিকমাধ্যমে তুলনামূলক কম সরব হয়েও এই নিয়ে মুখ খুলতে বাধ্য হয়েছেন জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক মাশরাফী মোর্ত্তজা। শনিবার প্রথম ম্যাচের পরই এক ফেসবুক পোস্টে তিনি লেখেন, খেলার সাথে কোনো কিছু মেলানো যায় না এটা ঠিক, কিন্তু খেলাটা যখন আমাদের দেশে, আর খেলছে আমাদের দেশ, সেখানে অন্য যে দেশই খেলুক না কেন, তাদের পতাকা তাদের দেশের মানুষ ছাড়া আমাদের দেশের মানুষ ওড়াবে, এটা দেখে সত্যি কষ্ট লাগে। যে যাই বলুক, ভাই, দেশটা কিন্তু আপনার। আজ হয়নি তো কাল হবে, না হলে পরশু হবে। আপনারা পাশে না থাকলে আর হবেই না। হারি বা জিতি স্টেডিয়ামে আমাদের দেশের পতাকা উড়ুক, চিৎকার হোক বাংলাদেশ।

আইনিউজ/এসডি

আইনিউজ ভিডিও

ক্রিকেট দলের খেলা নিয়ে হতাশ না হওয়ার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর

Green Tea
সর্বশেষ
জনপ্রিয়