ঢাকা, শুক্রবার   ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১,   আশ্বিন ২ ১৪২৮

সোশ্যাল মিডিয়া ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৭:০০, ১২ সেপ্টেম্বর ২০২১
আপডেট: ১৭:৫৪, ১২ সেপ্টেম্বর ২০২১

অভিভাবকের অনুভূতি

অনেকদিন পর বিদ্যালয়ে যাচ্ছে সন্তানরা

রিকশায় চড়ে স্কুলে যাচ্ছে অনশ্রী

রিকশায় চড়ে স্কুলে যাচ্ছে অনশ্রী

অনেক দিনের আকাঙ্ক্ষা আজ উৎসাহ উদ্দীপনায় রূপ নিলো। নতুন স্কুল ড্রেস, নতুন জুতা-মোজা, নতুন মাস্ক পরে প্রস্তুত হয়ে আমাদের ছোট মেয়ে অনশ্রী রাণী দাশ আজ মৌলভীবাজারের ঐতিহ্যবাহী আলী আমজাদ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে প্রথম ক্লাস করল।

অনেক আশায় বুক বেঁধেছিল বড় দিদি (অতশ্রী) যে বিদ্যালয়ে পড়ে সে বিদ্যালয়ে আমাকেও পড়তে হবে। ঠিক যেমনটি হয়েছিল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে থাকাকালীন অবস্থায়। বড় বোন অতশ্রী যখন শিশু কানন বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছিলো তখন অনশ্রী শিশু শ্রেণিতে একই বিদ্যালয়ে ভর্তি হয় এবং একসাথে বড় বোন যখন পঞ্চম শ্রেণিতে তখন সে প্রথম শ্রেণিতে একটানা তিনটি বছর দুইবোন একসাথে গিয়েছিল।

আজ আলী আমজাদ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে বড় বোন অতশ্রী দশম শ্রেণির বিজ্ঞান শাখার প্রভাতির নিয়মিত ছাত্রী এবং অনশ্রী ষষ্ঠ শ্রেণির 'ক' শাখার প্রভাতির নিয়মিত ছাত্রী হিসেবে আজ প্রথম ক্লাস করলো। দু'জনেই প্রভাতি শাখার হলেও করোনাভাইরাসের কারণে ক্লাস সময়ের ভিন্নতা ছিলো।  

বড় বোন অতশ্রীর সাথে অনশ্রী 

বর্তমান প্রেক্ষাপটের কারণে দশম শ্রেণির ক্লাস প্রত্যেক দিন(শুক্রবার ব্যতীত) সকাল ৮ টা থেকে ৯ টা ২০ পর্যন্ত। আর ৬ষ্ঠ শ্রেণির ক্লাস শুধু মাত্র সপ্তাহের রোববার সকাল ৯ টা ৫০ থেকে ১১ টা ১০ পর্যন্ত। 

ক্লাস টাইম ১ ঘণ্টা ২০মিনিট তাতে কি? সহপাঠীদের সাথে অনেক দিন পর দেখা, নতুন স্যার-ম্যাডামদের সাথে পরিচয় হয়ে বেশ ভালোই লাগবে। আজ পরিচয় পর্বের মধ্য দিয়ে শ্রেণি শিক্ষক সত্যব্রত স্যারের বাংলা পাঠদান বেশ ভালোই লাগছিলো অনশ্রী'র। তারপর গণিত ক্লাস নেয়ার জন্য হাজির হলেন সঞ্জিত স্যার। খুব ভালো হলো ক্লাসগুলো। ক্লাস রুটিনও দিয়ে দিলেন। তাহলে শুরু হলো বিদ্যালয়ের পড়ালেখা। 

বড় বোন ক্লাস শেষ  করে বেরিয়ে আসলো, ছোট বোন ক্লাস করার জন্য ভিতরে প্রবেশ করলো। বড় বোন অতশ্রীও সাথে সাথে ছোট বোন অনশ্রীর সাথে ভিতরে গিয়ে ক্লাস রুমটা পরিচয় করিয়ে দিয়ে আসলো। 

বেশ ভালোই লাগলো 'অতশ্রী-অনশ্রী'র বাবা-মায়ের। অনেকদিন পর নিজ বিদ্যালয়ে সন্তানরা যাচ্ছে। যাতে সুস্থ শরীর নিয়ে দুই বোন নিয়মিত ক্লাস করতে পারে এই প্রার্থনা সবার নিকট।   

অসিত কুমার দাশ (অভিভাবক ও ব্যাংক কর্মকর্তা, সাউথ ইস্ট ব্যাংক ) 

Green Tea
সোশ্যাল মিডিয়া বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
সর্বশেষ
জনপ্রিয়