ঢাকা, বুধবার   ১৮ মে ২০২২,   জ্যৈষ্ঠ ৩ ১৪২৯

আশরাফ আলম বাবর

প্রকাশিত: ১৭:৩৩, ২১ জানুয়ারি ২০২২
আপডেট: ১৭:৩৮, ২১ জানুয়ারি ২০২২

শাবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের চাওয়ার প্রতি আপনাদের সহমর্মিতা আমাদের ঋণ

যিনি যাদের জন্যে ভিসি সেই শিক্ষার্থীরা উনাকে চায় না। উনার কাছে নিজেদেরকে নিরাপদ মনে করে না- এবং নৈতিক দিক দিয়েও আসলে উনি ভিসি থাকার যোগ্যতা হারিয়েছেন।

সিলেটের আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের প্রতি আন্তরিক ধন্যবাদ- শাবিপ্রবিতে আমাদের প্রিয় শিক্ষার্থীবৃন্দের প্রতি আপনারা যে নজিরবিহীন সহমর্মিতা প্রদর্শন করে যাচ্ছেন তা অবশ্যই উল্লেখযোগ্য। একইসাথে নিঃসন্দেহে এটা আপনাদের জন্যে অনেক বড় চ্যালেঞ্জ বলেই আমার কাছে মনে হয়- সারা দেশের মানুষ আপনাদের মুভমেন্টের দিকে, সরকারি উদ্যোগের দিকে তাকিয়ে আছে; আপনারা কি সিদ্ধান্ত নিবেন।

যিনি যাদের জন্যে ভিসি সেই শিক্ষার্থীরা উনাকে চায় না। উনার কাছে নিজেদেরকে নিরাপদ মনে করে না- এবং নৈতিক দিক দিয়েও আসলে উনি ভিসি থাকার যোগ্যতা হারিয়েছেন। এটা আজ সারাদেশের মানুষ, সারাদেশের শিক্ষার্থী, সারাদেশের অভিভাবক একযোগে মনে করেন। এমনকি বাবা-মায়েরা তাদের প্রাণপ্রিয় সন্তানদের আমরণ অনশনেও বাঁধা দেন নি। অসম্মান নিয়ে, নিরাপত্তাহীনতা নিয়ে, অনুদাস হয়ে বেঁচে থাকার চেয়ে মৃত্যু যদি তারা বরণ করে নিতে চায় তবে তাদের সেই সিদ্ধান্তের প্রতিই তারা সমর্থন জানিয়েছেন। যে সমর্থন আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধের সময়েও অনেক বাবা-মা জানিয়েছেন, যে সমর্থন নিয়ে আমরা-আপনারা সবাইই এমনকি গর্ববোধো করি। 

তাই আমরা আশা করি দেশের সেই সব আমরা এতো এতো সব মানুষের আকাংখার সাথে আপোষ করার সুযোগ নেই। এই অঞ্চলের আরেক নিবেদিত প্রাণ রাজনীতিক ব্যক্তিত্ব মরহুম এম. সাইফুর রহমান, সমগ্র দেশের মানুষের আশার প্রতি শ্রদ্ধা দেখিয়ে, এই সিলেটের মানুষের চাওয়া-পাওয়াকে সম্মান জানিয়ে, নিজ বিভাগের প্রধানতম শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের চাওয়াকে সম্মান জানিয়ে নিজ দলের আজ্ঞাবহ, এমনকি নিজ জেলার মানুষ তৎকালীন ভিসিকে সরিয়ে দিতে আপোষ করেন নি। এক ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তে তৎকালের ভিসিকে অপসারণে বাধ্য করেছিলেন, যা এখনো সাস্টের প্রতিটা সাবেক-বর্তমান শিক্ষার্থী, শিক্ষক স্মরণে রেখেছেন। যদিও তিঁনি বা তার দল তৎকালে আপনাদের মতো ঠিক কতটুকু সহমর্মিতা আমাদের প্রতি দেখিয়ে ছিলেন আমাদের জানা নেই। সেই তুলনায় আমাদের বর্তমান ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ, যুবলীগ, আওয়ামী লীগ সবাই বর্তমান এই ভিসিকে আর এক মুহুর্তও আমরা আমাদের মাঝে চাই না। 

আমরা আশা করি- এই অঞ্চলের অন্যতম শিক্ষাবিদ, একজন সফল ও আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিশেবে এবং অন্যান্য শীর্ষস্থানীয় নেতৃবৃন্দ হিশেবে আমাদের প্রাণপ্রিয় শাবিপ্রবির শিক্ষার্থীদের চাওয়ার প্রতি আপনারা সম্মান দিবেন- আপোষহীনতায় আজীবনের কৃতজ্ঞতায় আমাদের ঋণী করবেন।

 আশরাফ আলম বাবর, সাবেক শিক্ষার্থী, শাবিপ্রবি

Green Tea
সোশ্যাল মিডিয়া বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
সর্বশেষ
জনপ্রিয়