ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৯ জুলাই ২০২০,   আষাঢ় ২৪ ১৪২৭

ডেস্ক নিউজ

প্রকাশিত: ২২:৫৭, ২৯ জুন ২০২০

পিছিয়ে গেল সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ

করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের শুরু থেকেই বিভিন্ন ধরনের খেলাধুলার টুর্নামেন্ট স্থগিত হয়ে আসছে। অলিম্পিকসহ ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপ, কোপা আরেমিকার মতো টুর্নামেন্ট এক বছর পিছিয়ে গেছে। এবার এই তালিকায় যোগ হলো দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় টুর্নামেন্ট সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ।

এক বছরের জন্য সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। ২০২১ সালে এই টুর্নামেন্টটি অনুষ্ঠিত হবে। সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ আয়োজন নিয়ে আগে থেকেই শঙ্কা ছিল। স্থগিত করার আনুষ্ঠানিক ঘোষণার বাকি ছিল। সোমবার সেই ঘোষণা দিয়ে দেওয়া হলো।

আগামী ১৯ থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ঢাকার বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে এই টুর্নামেন্ট আয়োজন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)।

করোনাভাইরাসের ছোবলে অন্যান্য টুর্নামেন্টের মতো এই টুর্নামেন্টটিও পিছিয়ে গেল। আগামী বছরের কথা জানালেও এখনও সূচি নির্ধারণ করা হয়নি। সাফের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুল হক হেলাল জানিয়েছেন, পরের সভায় নতুন সূচি নির্ধারণ করা হবে।  

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে অংশ নেওয়া দেশগুলোর প্রতিনিধি, বিভিন্ন ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদকরা সোমবার অনলাইন বৈঠক করেন। এই বৈঠকেই সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আনোয়ারুল হক হেলাল বলেন, 'আমরা আজ সাফের সদস্য দেশগুলোর প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলোচনা করেছি। আলোচনার মাধ্যমে আমরা সবাই সিদ্ধান্ত নিয়েছি, এ বছর সেপ্টেম্বরে ঢাকায় যে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ হওয়ার কথা ছিল, সেটা আগামী বছর পর্যন্ত বাতিল করা হলো। আগামী বছর টুর্নামেন্ট কখন হবে, আমরা নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে নির্দিষ্ট তারিখ কদিনের মধ্যে জানাব।'

অন্যান্য টুর্নামেন্ট আয়োজনের ব্যাপারে তিনি বলেন, 'বয়সভিত্তিক যে টুর্নামেন্টগুলো হওয়ার কথা ছিল, এগুলো নিয়ে আমরা সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি আবার বসব। করোনাভাইরাস পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে যদি দেখা যায় যে, একটি বা দুটি টুর্নামেন্ট আয়োজন সম্ভব, তাহলে ডিসেম্বরে সেটা করব। তা না হলে, এগুলোও বাতিল করা হবে পরবর্তী বছর পর্যন্ত।

গত মার্চ থেকেই বাংলাদেশের সব ধরনের ফুটবল বন্ধ আছে। এবারের পুরো ঘরোয়া মৌসুমই বাতিল করা হয়েছে। ফিফা ও এএফসির বাছাইপর্বের ম্যাচগুলোর ভাগ্যও অন্ধকারে পড়ে আছে। 

Green Tea
সর্বশেষ
জনপ্রিয়