ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৭ জানুয়ারি ২০২২,   মাঘ ১৪ ১৪২৮

শ্যামলাল গোঁসাই, দুবাই

প্রকাশিত: ২৩:০১, ৮ জানুয়ারি ২০২২

‘তেলাওয়াতের সুরই আমাদের ভাষা’

দুবাই প্রবাসী লেখক শ্যামলাল গোঁসাই ও ইথিওপিয়ান আমান

দুবাই প্রবাসী লেখক শ্যামলাল গোঁসাই ও ইথিওপিয়ান আমান

দেশে-বিদেশে, চেনা-অচেনা যেকোন মানুষের সাথে বন্ধুত্ব করতে আমার তেমন কোন বেগ পেতে হয়না। দুবাই আসার পর যে কয়টি জায়গায় ছিলাম সেখানেই কারোনা কারো সাথে একটা সুসম্পর্ক গড়ে ওঠেছে। একইভাবে বার দুবাই থেকে স্থানীয় একটা লেবার ক্যাম্পে আসার পর ছবির এই তরুণের সাথেও বন্ধুত্ব পাতিয়ে ফেলেছি। আর সেটা সুরের মারফতে।

আমান ইংরেজি অল্পস্বল্প বুঝে, হিন্দির ক্ষেত্রেও তাই। ফলে আমাদের মৌখিক যোগাযোগে অনেক সমস্যা হয়। কিন্তু তেলাওয়াত যখন শোনায় বা শুনাই তখন আমাদের এসবের কোন দরকারই বোধ হয়না।

এই বন্ধুটির নাম আমান, সে সূদুর সেই ইথিওপিয়া থেকে জীবিকার টানে এখানে এই মরুর দেশে এসেছে। ওর সাথে বন্ধুত্ব একটু আলাদা উপায়ে। ইথিওপিয়ার রাষ্ট্রীয় ভাষা আমহারীয়। এই ভাষাটি সেমেটিক ভাষাগোষ্ঠীর অন্তর্ভুক্ত। তবে আমান আরবীতেই কথা বলে। সম্ভবত ওখানকার অনেক মুসলিমই আরবীতে কথা বলে। অন্তত এখানে যারা আছেন তাদের সবাইকেই আরবীতে কথা বলতে শুনছি। 

তো আমানের সাথে সম্পর্ক তেলাওয়াতের সূত্র ধরে। ওর তেলাওয়াতের গলা দারুণ। দারুণ বলতে ওদের তেলাওয়াতের ধরনটা একটু ভিন্ন আর শ্রুতিমধুর। গত পড়শু ভাঙা ভাঙা ইংরেজি-হিন্দি মিলিয়ে যখন আমানের সাথে কথা হচ্ছিলো তখন ও কথায় কথায় ওর তেলাওয়াত শোনায়। দেখলাম এখানেও সুরের মাধুকরী আছে। আমিও ওকে আমার তেলাওয়াত শুনাই। ছেলেবেলায় আমিও ক্বারীয়ানা লাইনে পড়াশোনা করেছিলাম দীর্ঘদিন। এবং সেই সূত্রে আমাকেও তেলাওয়াত শিখতে হয়েছিলো। যারা আমার সম্পর্কে আগাগোড়া জানেন তারা আমার তেলাওয়াতের ব্যাপারটিও জানেন। তেলাওয়াতও আমার ভালো লাগে। ব্যক্তিগতভাবে তেলাওয়াতের মিশরীয় ধরনটা আমার ভীষণ পছন্দের। 

আমানকে তেলাওয়াত শোনানোর পর সে আমায় জিজ্ঞেস করে, 'You also Muslim?'। আমি হেসে হেসে জিজ্ঞেস করলাম, 'Is it obligatory to be a Muslim for recite the Qur'an?' আমান আমার প্রশ্নটি শুনে হেসে দিলে। সেই হাসি থেকেই আমাদের সম্পর্কের শুরু। আমরা এক ঘরেই থাকি। গতকাল ডিউটি থেকে ফেরার পর অনেক্ষণ ও তেলাওয়াত শুনিয়েছে। আমিও শুনালাম। 

আমান আরবীতে কথা বলে। এদিকে এখানে আসার পর থেকে আমাকে হিন্দিতে কথা বলতে হচ্ছে সাথে ইংরেজি। যদিও এটা দুবাই তবু এখানে হিন্দিই চলে বেশি। তবে এই হিন্দি আর দিল্লিয়ানী হিন্দির মাঝে আছে বিস্তর ফাড়াক। আসলে দুবাইর হিন্দি অনেক জাতিগোষ্ঠীর মুখনিঃসৃত ভাষার একটা সংমিশ্রিত রূপ। এখানকার হিন্দিতে আপনি খুঁজলে আরবী শব্দ পাবেন, হিন্দি শব্দ পাবেন এবং উর্দুও পাবেন। যারা বাঙালি তারা এই হিন্দিতে দুই একটি বাংলা শব্দ জুড়ে দেয়ার অপচেষ্টাও করছেন। সবকিছুর একটা গোঁজামিলে তৈরি দুবাইর হিন্দি।

আমান ইংরেজি অল্পস্বল্প বুঝে, হিন্দির ক্ষেত্রেও তাই। ফলে আমাদের মৌখিক যোগাযোগে অনেক সমস্যা হয়। কিন্তু তেলাওয়াত যখন শোনায় বা শুনাই তখন আমাদের এসবের কোন দরকারই বোধ হয়না। দুইজন দুই সুরে তেলাওয়াত করি। এখন তেলাওয়াতই আমাদের ভাষা হয়ে গেছে। যদিও আমার জন্য ব্যাপারটা একটু দুস্কর। তবু সুর যে নিজেই একটা ভাষা, তা এখন যেন আরও গভীরভাবে উপলব্ধি করছি।

Green Tea
সর্বশেষ
জনপ্রিয়