ঢাকা, মঙ্গলবার   ০২ মার্চ ২০২১,   ফাল্গুন ১৮ ১৪২৭

আব্দুর রব, মৌলভীবাজার

প্রকাশিত: ২১:০৪, ২৭ জানুয়ারি ২০২১
আপডেট: ২১:০৪, ২৭ জানুয়ারি ২০২১

বেরি লেক হবে মৌলভীবাজারের ‘হাতিরঝিল’

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যমণ্ডিত মৌলভীবাজারের বেরি লেক। ছবি: আব্দুর রব

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যমণ্ডিত মৌলভীবাজারের বেরি লেক। ছবি: আব্দুর রব

মৌলভীবাজার পৌর নির্বাচনকে সামনে রেখে বেরি লেক সংস্কার ও আধুনিকায়নকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়ে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বর্তমান মেয়র ও নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ফজলুর রহমান। এবছর পুনরায় মেয়র নির্বাচিত হলে বেরি লেককে হাতিরঝিলের রূপে রূপান্তর করার অঙ্গীকার করেছেন তিনি।

মৌলভীবাজার শহরের বুকে প্রাকৃতিকভাবে তৈরি হওয়া হ্রদ ‘বেরি লেক’। লেকের আয়তন ১৪ একর ৬৫ শতক। বর্তমানে লেকটি দখল-দূষণের কবলে থাকায় হারিয়েছে সৌন্দর্য ক্ষতি হচ্ছে পরিবেশের।

লেকের একপাশ ঢাকা-সিলেট আঞ্চলিক মহাসড়ক অন্যপাশে শাহ মোস্তফা সড়ক। এবং উত্তর পাশে বেরির চর নামে একটি পাড়া গড়ে উঠেছে। সেখানে অনেকগুলো দালান গড়ে উঠেছে, রয়েছে কাঁচা পাকা ঘর।

লেকটির চারিদিকে নানা ময়লা-আবর্জনা ফেলে রাখা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন রকম পানীয়ের বোতল, খাবারের প্লাস্টিকের বাক্স, প্যাকেট, চটের বস্তা, চিপস প্যাকেট ইত্যাদি। পাড় ঘেঁষে গজিয়েছে বিভিন্ন জাতের জলজ ঘাস, কচুরিপানা ও আগাছা।

তবে বর্তমানে লেকটি বেদখল আর বেযত্নে সৌন্দর্য হারাচ্ছে। যা ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ নিয়েছেন বর্তমান মেয়র ফজলুর রহমান। ছবি: আব্দুর রব

শাহ মোস্তফা রোডের পাশে লেকের দক্ষিণ পাড়ে গড়ে উঠেছে ট্রাক স্ট্যান্ড। পাথরের স্তুপ, অস্থায়ী স্থাপনা, এবং অস্থায়ী বাজার।শহরের বুকে পড়ে থাকা এ হ্রদ নিয়ে বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করা হলেও বাস্তবায়ন হয়নি।

'গড়বো স্বপ্নের শহর মৌলভীবাজার' এই ব্যানারে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সহ বিভিন্ন মাধ্যমে কাজ করছেন ডোরা প্রেন্টিস।

তিনি জানান, কোদালীছড়া ছিলো মৌলভীবাজার শহরের অভিশাপ, আমাদের দাবী ও কাজের ফলে বর্তমান মেয়র কোদালীছড়া উন্নয়নে কাজ করেছেন, এখন এটি আর্শীবাদ। শীঘ্রই এ স্থানটি বিনোদন কেন্দ্রে পরিনত হবে। একইভাবে বেরিলেক আমাদের শহরের অক্সিজেন, একে রক্ষা করে আধুনিক বিনোদন কেন্দ্র নির্মাণের ঘোষণায় আমরা আশাবাদী।

বর্তমান মেয়র পুনরায় নির্বাচিত হলে কোদালীছড়ার মতো বেরি লেক প্রাণ ফিরে পাক সেই প্রত্যাশর কথা জানান ডোরা।

বর্তমানে এখানে সাপ্তাহিক ছাগলের হাট বসে। পাশাপাশি ট্রাক স্ট্যাণ্ডের কারণে নষ্ট হচ্ছে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য। ছবি: আব্দুর রব

মৌলভীবাজার বাপা জেলা সমন্বয়ক আ স ম সালেহ সোহেল বলেন, ‘বেরি লেক'কে দূষণ ও দখলের হাত থেকে রক্ষা করা জরুরী। এখানে পার্ক ছিলো, সেটা উচ্ছেদ হয়েছে। এখন সেখানে ট্রাকস্ট্যান্ড, ছাগলের হাট বসছে। এটা কোনোভাবেই লেকের সঙ্গে যায় না।’

তিনি বলেন, ‘এখানে পুনরায় পার্ক স্থাপন করে, মানুষের বিনোদনের সুযোগ তৈরি করতে হবে। বর্তমান মেয়র ও নৌকার প্রার্থী যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, আমরা সাধুবাদ জানাই। এরফলে লেক ফিরে পাবে তার সৌন্দর্য, রক্ষা পাবে পরিবেশ-প্রকৃতি। তিনি নির্বাচিত হলে প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী কাজ করবেন সে দাবী আমরা জানাই।‘

প্রাকৃতিক এই হ্রদের সুরক্ষা, সৌন্দর্যবর্ধন ও উন্নয়নকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছেন আওয়ামীলীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থী ফজলুর রহমান। ছবি: আব্দুর রব

নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ফজলুর রহমান বলেন, প্রাকৃতিক এই হ্রদের সুরক্ষা, সৌন্দর্যবর্ধন ও উন্নয়নকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছি। এবার পৌর নির্বাচনে জনগণ তাদের ভোটাধিকার এর মাধ্যমে আমার পক্ষে রায় দিলে, বেরি লেক সংস্কার ও আধুনিকায়নে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে আমার প্রথম কাজ। বেরিলেক'কে দৃষ্টনন্দন করে ঢাকার হাতিরঝিল এর মতো গড়ে তুলবো। যার ফলে শহরের সৌন্দর্য বহুগুণ বৃদ্ধি পাবে।

এর পাশাপাশি, শহরকে পর্যটন ও ভ্রমনের উপযোগী করে তোলার কথাও জানান বর্তমান এই মেয়র।

তিনি বলেন, ‘শান্তিবাগে বিনোদনের জন্য একটি পার্ক। কাশিনাথ রোডে মহিলাদের নান্দনিক ওয়াকওয়ে, কোদালীছড়ার দুইপাশে আড়াই কিলোমিটার ওয়াকওয়ে, সিসি ক্যামেরা স্থাপন, বসার স্থানসহ সব ধরনের কাজ করবো। শিক্ষা ও বিনোদনের জন্য কাজ করবো। এই শহরকে নান্দনিক ও ফুলেল শহরে পরিনত করবো।‘

আইনিউজ/এইচএ

Green Tea
সর্বশেষ
জনপ্রিয়