ঢাকা, সোমবার   ০৮ মার্চ ২০২১,   ফাল্গুন ২৪ ১৪২৭

ইবি প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৪:০১, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১
আপডেট: ১৪:০১, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দেয়া সিদ্ধান্ত প্রত্যাখান করল ইবি শিক্ষার্থীরা

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়

শিক্ষামন্ত্রণালয়ের দেয়া সিদ্ধান্ত প্রত্যাখান করেছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। এরই সাথে পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে তাদের পক্ষ থেকে।

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডায়না চত্ত্বরে সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী জি কে সাদিক। 

সংবাদ সম্মেলনে সাদিক বলেন, সরকার ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনগুলো করোনা সংক্রমনের দোহাই দিয়ে হল ও ক্যাম্পাস খুলে শিক্ষাকার্যক্রম স্বাভাবিক করতে চাইছেন না। কিন্তু সারাদেশের সবকিছু উন্মুক্ত করে দেয়া হয়েছে।

অন্যদিকে করোনা সংক্রমনও কমে এসেছে এবং ইতোমধ্যে ভ্যাকসিনও চলে এসেছে। সেই পরিপ্রেক্ষিতে আমরা বলতে চাই, আগামী ১৭ মে হল ও ২৪ মে ক্যাম্পাস খুলে দেয়ার যে অযৌক্তিক সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে সেখান থেকে সরে এসে দ্রুত হল ও ক্যাম্পাস খুলে শিক্ষাকার্যক্রম শুরু করতে হবে।

তিনি বলেন, শিক্ষামন্ত্রণালয়ের এমন সিদ্ধান্ত আমরা পুনর্বিবেচনা করার দাবি করে এ সিদ্ধান্তকে প্রত্যাখান করছি। আমরা মনে করি, এ সিদ্ধান্ত সাধারণ শিক্ষার্থীদের পরিস্থিতি বিবেচনায় না নিয়েই গ্রহণ করা হয়েছে।

তিনি আরোও বলেন, ‘শিক্ষামন্ত্রীর ঘোষণার পর ইতোমধ্যে ইবিতে সকল ধরনের পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। হঠাৎ পরীক্ষা বন্ধ করে দিয়ে শিক্ষার্থীদের বিপাকে ফেলা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের প্রতি আহ্বান করছি অযৌক্তিক সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসে হল-ক্যাম্পাস খুলে শিক্ষা কার্যক্রম স্বাভাবিক করুন। অন্যথায় শিক্ষার্থীরা হলে ঢোকার ব্যবস্থা নিজেরাই করে নিবে’।

স্থগিতকৃত পরীক্ষা কার্যক্রম স্বাভাবিক করে দেয়া ও আগামী ১ মার্চের মধ্যে হল না খুললে হলে উঠে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তারা। দাবি না মেনে নেয়া পর্যন্ত এ কর্মসূচি চলমান থাকবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

এর আগে সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী বলেন,

সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে শ্রেণিকক্ষে পাঠদান ঈদুল ফিতরের পর ২৪ মে শুরু হবে। এর এক সপ্তাহ আগে ১৭ মে আবাসিক হলসমূহ খুলে দেওয়া হবে। তবে এই সময়ের মধ্যে আগের মতোই অনলাইন ক্লাস চলবে। শ্রেণিকক্ষে পাঠদান ও কোনো ধরনের পরীক্ষা নেওয়া হবে না। শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরুর পর সব পরীক্ষা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।

শিক্ষামন্ত্রী দেয়া এই সিদ্ধান্তকে প্রত্যাখান করলেন ইবির শিক্ষার্থীরা।

আইনিউজ/এসডিপি

আরও পড়ুন: ১৩ মার্চ নয়, ১৭ মে খুলছে ঢাবির হল

Green Tea
শিক্ষা ও ক্যাম্পাস বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
সর্বশেষ
জনপ্রিয়