ঢাকা, মঙ্গলবার   ০২ মার্চ ২০২১,   ফাল্গুন ১৮ ১৪২৭

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ০০:০৩, ২৮ জানুয়ারি ২০২১

আন্তর্জাতিক হলোকাস্ট স্মরণ দিবসে বিশেষ আলোচনা অনুষ্ঠান

সংগৃহীত

সংগৃহীত

গণহত্যা জাদুঘরের উদ্যোগে আন্তর্জাতিক হলোকাস্ট স্মরণ দিবস উপলক্ষে একটি বিশেষ অনলাইন আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (২৭ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় আয়োজিত অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ পড়েন লেখক সাংবাদিক শাহরিয়ার কবির। অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব তপন কান্তি ঘোষ এবং সভাপতিত্ব করেন অধ্যাপক মুনতাসীর মামুন।

ড. চৌধুরী শহীদ কাদেরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে ভারত থেকে যোগ দিয়েছেন 'মুক্তিযুদ্ধ মৈত্রী সম্মাননা' প্রাপ্ত প্রখ্যাত সাংবাদিক মানস ঘোষ।

প্রতিবছর ২৭ জানুয়ারি নাজি আমলে সংঘটিত গণহত্যায় প্রাণ হারানো মানুষদেরকে স্মরণ করে বিশ্বব্যাপী আন্তর্জাতিক হলোকাস্ট স্মরণ দিবস পালিত হয়। জাতিসংঘসহ পৃথিবীর বিভিন্ন রাষ্ট্র ও সংগঠন পৃথক অথবা যৌথ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে দিনটি স্মরণ করে। হলোকাস্ট স্মরণ দিবস-২০২১ এর মূল প্রতিপাদ্য হচ্ছে "Facing the Aftemath: Recovery and Reconstitution after the Holocaust". 

মূল বক্তা শাহরিয়ার কবির হলোকাস্ট এবং বাংলাদেশের গণহত্যাসহ পৃথিবীর সকল গণহত্যায় প্রাণ হারানো মানুষদের স্মরণ করে ও শ্রদ্ধা জানিয়ে বক্তৃতা শুরু করেন। তিনি জাতিসংঘের বরাত দিয়ে গণহত্যা অস্বীকার ও ইতিহাস বিকৃতিরোধে সবাইকে সোচ্চার হতে আহবান জানান।

বিশেষ অতিথি সাংবাদিক মানস ঘোষ তার বক্তৃতায় একাত্তরের গণহত্যার স্মৃতিচারণ করেন। তিনি গণহত্যার যে সকল ঘটনা প্রত্যক্ষ করেছেন তা তুলে ধরেন।

প্রধান অতিথি মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব তপন কান্তি ঘোষ তার বক্তৃতায় একজন বীরাঙ্গনার স্মৃতি তুলে ধরার পাশাপাশি কীভাবে নির্মূল কমিটিসহ নানা নাগরিক আন্দোলন বিস্মৃতির বিরুদ্ধে লড়েছিল সেটাও তুলে ধরেন। মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বিকাশে এই সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগের কথাও উল্লেখ করেন।

সভাপতিত্বের বক্তব্যে ড. মুনতাসীর মামুন বাংলাদেশের গণহত্যার স্বীকৃতি আদায়ের লড়াইয়ে নতুন প্রজন্মের যোগদানের বিষয়ে উল্লেখ করেন। তিনি গণহত্যাও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস সংরক্ষণ এবং ইতিহাস বিকৃতি রোধের জন্য আর্কাইভ গড়ে তোলার প্রতি গুরুত্ব আরোপ করেন।

আইনিউজ/এসডিপি

Green Tea
সর্বশেষ
জনপ্রিয়